| |

উন্নত সমৃদ্ধ ময়মনসিংহ বিভাগ গঠনের প্রত্যয়ে নবাগত বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান

আপডেটঃ ৯:২০ অপরাহ্ণ | জুন ০১, ২০২০

Ad

ইব্রাহিম মুকুট ঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ১৩ অক্টোবর দেশের অষ্টম বিভাগ প্রতিষ্ঠা করেন। সেই সাথে লন্ডন শহরের আদলে ব্রহ্মপূত্র নদের দুই তীরে একটি পরিকল্পিত আধুনিক উন্নত বিভাগীয় শহর গড়ে তোলার জন্যেও ইচ্ছা প্রকাশ করেন। এর আলোকে নগর উন্নয়ন অধিদপ্তর চার সহ¯্রাধিক একর জমির উপর বিভাগীয় শহর গড়ে তোলার একটি প্রস্তাবনার প্রকল্প একনেক সভা থেকে ফেরত আসে। সেটি আজো বাস্তবায়ন হয়নি। বিভাগ প্রতিষ্ঠার প্রায় ৫ বছরে অধিকাংশ বিভাগীয় দপ্তর স্থাপন ছাড়া দৃশ্যমান আর কোনো উন্নতি হয়নি বলে নাগরিকরা জানান। তাছাড়া বিভাগে নানা সমস্যাগুলোরও সমাধান এখনো বাকী। ইত্যবসরে ১ জুলাই বিভাগে ৪র্থ বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে যোগদান করেছেন মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি।
স্বল্পপরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ময়মননিংহ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ১ জানুয়ারি দুপুরে ময়মনসিংহ বিভাগের বিদায়ী ও নব যোগদানকৃত বিভাগীয় কমিশনারের বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃত প্রতিষ্ঠিত ময়মনসিংহকে একটি আধুনিক উন্নত সমৃদ্ধ বিভাগ গড়ে তোলার জন্য সকলের আন্তরিক সহযোগীতা কামনা করেছেন নতুন বিভাগীয় কমিশনার মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি। সিলেট বিভাগ প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে বিভাগীয় কমিশনারের পিএস হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে একটি বিভাগ প্রতিষ্ঠা করতে কী মেধা ও শ্রম দিতে হয়, সে অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চান নতুন বিভাগীয় কমিশনার।
ময়মনসিংহে ১০ মাসে কর্মকালে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের শহীদ সদস্যদের ম্যুরাল স্থাপন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিভাগের চার জেলায় ৭ হাজার ৮২৩জন ভূমিহীন পরিবরের মাঝে কৃষি খাসজমি বন্দোবস্ত প্রদান, নিষিদ্ধ পলিথিনমুক্ত, বাল্যবিবাহমুক্ত ও শিশুশ্রমমুক্ত বিভাগ, দেশে প্রথম ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার অফিসের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের দ্বারা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা, অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদসহ নানা সাফল্যের বিষয় বর্ণনা দেন বিদায়ী বিভাগীয় কমিশনার খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহরমান এনডিসি। গত ২০১৮ সালের ৩০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত একনেক সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক বিভাগীয় নতুন শহর স্থাপনের জন্য সংশোধিত দুইটি প্ল্যান প্রস্তুত করা হয়। একটি ৯৫২.০৭১৫ একর জমি নিয়ে স্বল্প মেয়াদে প্ল্যাণ -ই এবং অপরটি ৩০০৩.১৮২ একর জমি নিয়ে দীর্ঘমেয়াদে প্ল্যান-জি । এই প্ল্যান দুটি প্রধানমন্ত্রীর নিকট উপস্থাপনের জন্য ডিজিটাল ফরম্যাটে তৈরি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান বিদায়ী বিভাগীয় কমিশনার খোন্দাকার মোস্তাফিজুর রহমান।
করোনা দুর্যোগে রোগীদের সুষ্ঠু চিকিৎসার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ, নতুন বিভাগীয় শহর স্থাপনসহ একটি সমৃদ্ধ বিভাগ গঠনে নতুন বিভাগীয় কমিশনার অগ্রণী ভূমিকা পালন করবেন বলে আশা পোষন করেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু।
ময়মননিংহ জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হুমায়ুন কবীর, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামূল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আমিনুল হক শামীম (সিআইপি), ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম ও ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক অমিত রায় প্রমূখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সমর কান্তি বসাক, ময়মনসিংহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ হাফিজুর রহমান প্রমূখ।

ব্রেকিং নিউজঃ