| |

বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সাবেক চেয়ারম্যান শফিকুল আমীন খসরু আর নেই

আপডেটঃ 6:30 pm | June 08, 2020

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার, আওয়ামী লীগ নেতা, গফরগাঁও উপজেলার ৭ নং মশাখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শফিকুল আমীন খসরু ৮ জুন‘২০ বিকাল ৫.২২ মিনিটে. ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ধাকাকালীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন (ইন্নালিল্লাহে—- রাজিউন)। মরহুমের নামাজে জানাযা আগামীকাল ৯ জুন বাদ যোহর গফরগাঁওয়ের মশাখালী ইউনিয়নের বীরখারুয়া গ্রামে নিজ বাড়িতে অনুষ্ঠিত হবে। মৃত্যুকালে উনার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। উনি স্ত্রী, ৩ ছেলে, ১ মেয়ে, ভাই, আত্মীয়স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী ও শুভাকাঙ্ক্ষী রেখে গেছেন। গফরগাঁও চাকরিজীবী কল্যাণ ফোরাম ময়মনসিংহ-এর সভাপতি ছোট ভাই অধ্যক্ষ মোঃ রফিকুল ইসলাম মজনু ও পরিবারের পক্ষ থেকে জানাজায় শিরীক হওয়ার জন্য আত্মীয় স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষী, রাজনৈতিক ব্যক্তিদেরকে উপস্থিত হওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন। মরহুমের লাশ গফরগাঁও উপজেলা মশাখালী ইউনিয়নের নিজ বাড়ীতে পারিবারিক কবরস্থানে দাফর করা হবে। তিনি ৫ জুন সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ১৫ নং ওয়ার্ড এর ৪ নং মুক্তিযোদ্ধা বেডে ভর্তি হন। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুরাতন বিল্ডিং এ বীরমুক্তিযোদ্ধা মোঃ শফিকুল আমীন খসরু আইসিইউ ওয়ার্ডে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্নেহভাজন, ঊনসত্তরের গণঅভুত্থানের অগ্র সৈনিক, বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক নেতা মরহুম আব্দুর রাজ্জাকের প্রিয়পাত্র, প্রয়াত সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফের রাজনৈতিক বড়ভাই, আওয়ামী পরিবার নেতৃবর্গের আপনজন, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, বীর মুক্তিযোদ্ধা, ১৯৬৬ মনে প্রতিষ্ঠিক ময়মনসিংহস্থ গফরগাঁও সমিতির সম্মানিত প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, গফরগাঁও উপজেলা ৭ নং মশাখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান, ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের ওয়ার্কিং কমিটির সাবেক সদস্য, ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য, গফরগাঁও থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য, ময়মনসিংহ স্টেশন কোয়ার্টার ক্লাবের সদস্য, আরো বহু সামাজিক সংগঠনের নেতৃস্থানীয় নির্লোভ ব্যক্তিত্ব গফরগাঁওবাসীর প্রাণের মানুষ মোঃ শফিকুল আমিন খসরু সবার কাছে খোলামেলা মিশুক সজ্জন ব্যক্তি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎগাধীন অবস্থায় অবশেষে মৃত্যু বরন করেছেন। অনেকদিন যাবত বার্ধক্য জনিত কারণে অসুস্থ থাকার পর ৫জুন বিকালে স্ট্রোক করলে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল এর পরামর্শে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৫ নং ওয়ার্ড এর ৪ নং বেডে ভর্তি করানো হয়। ভর্তির পর ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট মো: মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল লোক পাঠিয়ে খোঁজ খবর রাখেন। অপর দিকে অসুস্থতার সংবাদ পেয়ে আনন্দ মোহন কলেজের সাবেক ভিপি সাজ্জাদ হোসেন শাহীন জেলা প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। পরে উনার শরীরের এক সাইড প্যারালাইজড হয়ে যায়। তিনি গফরগাঁও চাকরিজীবী কল্যাণ ফোরাম, ময়মনসিংহ-এর সভাপতি অধ্যক্ষ মো: রফিকুল ইসলাম মজনু এর বড় ভাই। বর্ষিয়ান এই নেতার মৃত্যুতে ময়মনসিংহস্থ গফরগাঁও সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব এডভোকেট মো: জহিরুল হক খোকা ও সাধারন সম্পাদক এডভোকেট মো: মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি মরহুমের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। এছাড়া গফরগাঁও চাকরিজীবী কল্যাণ ফোরাম এর সভাপতি অধ্যক্ষ মো: রফিকুল ইসলাম মজনু ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আব্দুল মান্নান ফরিদী খোকা এই বর্ষিয়ান নেতার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন ও মরহুমের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

ব্রেকিং নিউজঃ