| |

অস্বাভাবিক বিদ্যু বিল প্রসঙ্গে কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা অনুষ্ঠিত

আপডেটঃ ১১:২০ অপরাহ্ণ | জুন ২২, ২০২০

Ad

গত কয়েকদিন যাবৎ বিদ্যুতের অস্বাভাবিক বিল নিয়ে গ্রাহকদের উদ্বেগ প্রসঙ্গে বিশিষ্ট চিকিৎসক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ডাঃ প্রদীপ চন্দ্র কর কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের জন্য অ্যাড. মোয়াজ্জেম হেসেন বাবুল, অ্যাড. এমদাদুল হক মিল্লাত ও অ্যাড. নজরুল ইসলাম চুন্নুকে আহ্বান জানিয়ে আজ সকালে তার ফেইসবুকে একটা পোস্ট দিয়েছেন। তার আহ্বানকে বিপুল সংখ্যক নাগরিক সমর্থন জানিয়েছেন।
ডাঃ প্রদীপ চন্দ্র কর এর আহ্বানে সাড়া দিয়ে আজ দুপুরে অ্যাড. মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুলের কোর্ট চেম্বারে উল্লিখিত তিনজন এক জরুরী সভায় মিলিত হন। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন অ্যাড. পীযূষ কান্তি সরকার, কাজী আজাদ জাহান শামীম ও শওকত জাহান মুকুল।
পিডিবি দক্ষিণ এর নির্বাহী প্রকৌশলী জনাব ইন্দ্রজিৎ দেবনাথ এর সাথে নেতৃবৃন্দের ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার আলোচনা ও সিদ্ধান্ত সমুহ নাগরিকদের অবগতির জন্য উপস্হাপন করা হলোঃ
(১) কোন বিলে যদি মিটারে প্রদর্শিত রিডিং এর চেয়ে বেশি রিডিং উল্লেখ করা হয় তাহলে সংশ্লিষ্ট গ্রাহক মিটারের রিডিং লিখে নিয়ে এবং সম্ভব হলে মোবাইল ফোনের ক্যামেরায় রিডিং এর ছবি ধারণ করে সংশ্লিষ্ট নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে যোগাযোগ করবেন। বিল সংশোধন করে দেয়া হবে।
(২) যদি একাধিক মাসের রিডিং একই বিলে দেয়া হয় তাহলে ব্যবহৃত ইউনিটের মুল্য নির্ধারিত হারের চেয়ে অধিক হারে গ্রাহককে বহন করতে হবে; যা ন্যায় সঙ্গত নয়। অনুরূপ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট নির্বাহী প্রকৌশলীকে বিষয়টি অবহিত করলে প্রতি মাসের বিল আলাদা করে দেয়া হবে।
(৩) করোনা পরিস্থিতিতে আর্থিক সংকটের কারণে কেউ যদি একসাথে বিল পরিশোধে অসমর্থ হন তবে আবেদনের ভিত্তিতে কিস্তির ব্যবস্হা করা হবে।
আর্থিক সংকটের কারণে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিল পরিশোধে ব্যর্থ হলে পর্যাপ্ত সময় ও সুযোগ না দিয়ে যেন গ্রাহকের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা না হয় কিংবা মামলা দিয়ে হয়রানী করা না হয় সে ব্যাপারে নেতৃবৃন্দ নির্বাহী প্রকৌশলীকে অনুরোধ করেন।
তারপরও যদি কোন গ্রাহক কোনরুপ সমস্যার সম্মুখীন হন তবে সংশ্লিষ্ট নেতৃবৃন্দ সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করবেন।

ব্রেকিং নিউজঃ