| |

বোররচর ইউনিয়নে নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেছেন জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ॥ নদী গর্ভে চলে গেছে হামিদুলের বাড়ী : ভাঙ্গনের মুখে সুরুজ্জামানের বাড়ী : আশঙ্কায় রয়েছে ১০ পরিবার

আপডেটঃ ১২:৩৩ পূর্বাহ্ণ | জুন ২৪, ২০২০

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ নদী গর্ভে চলে গেছে বোররচর ইউনিয়নের হামিদুলের বাড়ী। ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে সুরুজ্জামানের বাড়ী। এলাকার ১০ পরিবারের বাড়ীও রয়েছে ভাঙ্গন আশঙ্কায়। নদী ভাঙ্গন ঠেকাতে জরুরী ভিত্তিতে ব্রম্মপুত্র নদের মাঝ দিয়ে খনন করা প্রয়োজন বলে দাবী করেছে এলাকাবাসী। এলাকাবাসীর দাবী জরুরী ভিত্তিতে নদের মাঝের অংশ খনন করা হলে পনির খর শ্রোত যাবে নদের মাঝ দিয়ে। পাড়ের অংশে খরশ্রোত না থাকলে ভাঙ্গনের কবল থেকে রক্ষা পেতে পারে এলাকার অনেকেই। তড়িৎ পদক্ষেপ নেয়ার প্রত্যাশায় বোররচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ডা: মো: হেলাল উদ্দিন ও সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মো: আব্দুল আজিজ দারস্থ হন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের। চরাঞ্চলের মানুষের ভাগ্যন্নোয়নের পরিকল্পনা নিয়ে ময়মনসিংহ সদর উপজেলার অবহেলিত ৩নং বোররচর ইউনিয়নে নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেছেন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মো: মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল এর নেতৃত্বে জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ। ২৩ জুন দুপুরে নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন কালে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মো: মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শওকত জাহান মুকুল, দপ্তর সম্পাদক অধ্যক্ষ আবু সাঈদ দীন ইসলাম ফখরুল, আওয়ামীলীগ নেতা সেলিম আলমগীর, শ্রমিকলীগ নেতা মো: রাকিবুল ইসলাম শাহিন, বোররচর ইউনিয়নের কৃতি সন্তান ময়মনসিংহ জেলা তাঁতীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মোঃ আমানুল ইসলাম জলিল, জেলা যুবলীগ নেতা গোলাম মেহেদী হাসান, ছাত্রলীগ নেতা মো: হুমায়ুন কবির, আমিস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এসময় বোররচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ডাঃ হেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক হাজী আবদুল আজিজ, আওয়ামীলীগ নেতা নিজাম উদ্দিন, সিদ্দিক খলিফা, খায়রুল, দেলোয়ার হোসেন মেম্বার, সুবান মেম্বার, হাবিব মাষ্টার, আইয়ুব আলী সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। জেলা আওয়ামীলীগের নেতাদের কাছে এলাকা বাসি দাবি করেন, ব্রম্মপুত্র নদ খনন অবস্থায় অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে যদি একটি ড্রেজার দিয়ে নদের মাঝখানে খনন করা হয়, তাহলে আমাদের বাড়ি ঘর রক্ষা করতে পারবো, কারণ পানির গতিপথ নদের মাঝখানে চলে যাবে, তখন আর নদের তীরে ভাঙ্গবে না, আর এটি না হলে হামিদুলের মত আরো গরীব অসহায় মানুষের ঘরবাড়ি নদীতে বিলীন হয়ে যাবে বলে আমরা মনে করি। স্থানীয় আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল আজিজ হাজী বলেন, এই চর এলাকায় কোন রাস্তা নেই, রাস্তার সমস্যার কারণে এলাকার মানুষ কৃষি ফসলাদি পরিবহনের অভাবে সঠিক দামে বিক্রি করতে পারছে না, পাশাপাশি ছেলে মেয়েরা স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় যেতে পারছে না, তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের দাবি, এই এলাকায় চলাচলের রাস্তার ব্যাবস্থা করে দিবেন, তাহলে চরাঞ্চলের মানুষ উপকৃত হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ