| |

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে, করোনা কালেও ডেঙ্গু ও মশক নিধনে বিশেষ কার্যক্রম

আপডেটঃ 7:46 pm | July 01, 2020

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥
ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন (মসিক)’এর মেয়র মোঃইকরামুল হক টিটু পরামর্শক্রমে, র্স্বাস্হ্য বিভাগের উদ্যোগে বুধবার থেকে ৩৩’টি ওয়ার্ডে দুই পর্বে ডেঙ্গু ও মশক নিধনের এই বিশেষ কার্যক্রম শুরু হয়েছে । মশক নিধন,মসিকের নিয়মিত কার্যক্রম। তবে,করোনাকালের এসময়টিত একাজ বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।যেহেতু,এসময়েই ডেঙ্গুর বিস্তার ঘটে,সেহেতু ঝুঁকিও বেশি থাকে। আর সেজন্যই,দুটি পর্বে, ৫৪টি স্প্রে ও ফগার মেশিনের মাধ্যমে সংস্রিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর’দের সহযোগিতায় সকল ওয়ার্ডের সকল স্থানে একযোগে এই ডেঙ্গু ও মশক নিধন কার্যক্রম বাস্তবায়নের পরিকল্পনার গ্রহন করা হয়েছে। এ সম্পর্কে মেয়র টিটু বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমন প্রতিরোধ কার্যক্রমের ব্যস্ততার পাশাপাশি ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন মশক ও ডেঙ্গু সৃষ্টিকারী এডিস মশা নিধনকেও গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে,এই বিশেষ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। মশক নিধনের চলমান একার্যক্রম সম্পর্কে মসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এইচ. কে দেবনাথ জানান,মশক নিধনে টেকনিক্যাল কমিটির পরামর্শ মোতাবেক ১২২ টি হটস্পট চিহ্নিত করা হয়েছে। মসিক খাদ্য ও স্যানিটেশন কর্মকর্তা দীপক মজুমদার জানান,১ম পর্বে, মসিকের ১নং হতে ১৮নং ওয়ার্ড পর্যন্ত একযোগে সকাল থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ২টি স্প্রে মেশিন দদ্বারা ওষুধ স্প্রে করে মশার লার্ভা নিধন করা হবে এবং একই সঙ্গে প্রতিদিনই বিকেল ৪টা হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত, প্রতি ওয়ার্ডেই ১টি করে ফগার মেশিন দ্বারা উড়ন্ত মশা নিধনে কাজ করা হবে। প্রতিটি ওয়ার্ডেই এ কাজ ৪দিন পর্যন্ত চলবে। একইভাবে, দ্বিতীয় ধাপে ১৯নং ওয়ার্ড থেকে ৩৩নং ওয়ার্ডেও চারদিনব্যাপী অনুরূপ ভাবেই এই কার্যক্রম চালানো হবে। তিনি আরোও জানান,প্রয়োজনে পর্যায়ক্রমে এই কার্যক্রম চলমান থাকবে।

ব্রেকিং নিউজঃ