| |

খেলার মাঠে আনন্দের আতিশয্যে এধরনের ঘটনা অনুচিৎ

আপডেটঃ 7:02 pm | March 04, 2016

Ad

আলোকিত ময়মনসিংহ  : আনন্দের আতিশয্যে সাধারণ মানুষের সীমালঙ্ঘন না হয় ক্ষমা করা যায়, কিন্তু স্বয়ং জনপ্রতিনিধির সামনে যখন এমনটি ঘটে তাও আবার আন্তর্জাতিক কোনো অনুষ্ঠানে তাহলে দেশের মাথাই হেঁট হয়ে যায়!

গত ২ মার্চ মিরপুর স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ জয়ের পর এরকমই কাণ্ড করে বসে এক বাংলাদেশি। আর সামনেই বসা ছিলেন ঢাকা-১৬ আসনের সাংসদ ইলিয়াস মোল্লা। এদিন ছিল জাতীয় পতাকা উত্তোলন দিবসও। বিজয়ের উল্লাস প্রকাশ করতে গিয়ে পাকিস্তানের আইকনিক সমর্থক বশির আহমেদের (বশির চাচা) গায়ে জোর করে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা পরিয়ে তাকে ‘বাংলাদেশ’ বলতে বাধ্য করেন ওই বাংলাদেশি।

এদিকে ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ঘটনা সংশ্লিষ্ট এসব ছবি নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। অনেকেই এর বিচার দাবি করেছেন। কেউ কেউ সংসদ সদস্যকে এর জন্য দায়ী করলেও এর পক্ষে অবশ্য যথেষ্ট প্রমাণ মেলেনি। তবে এমন আচরণকে ‘জাতীয় পতাকার চরম অবমাননা’ হিসেবে দেখছেন অনেকে।

ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ছবিগুলোতে দেখা যাচ্ছে, পাকিস্তান হেরে যাওয়ার পর বশির আহমেদ কাঁদছেন আর তাকে ঘিরে বেশ কয়েকজন নারী-পুরুষ উল্লাস করছেন এবং মোবাইল ফোনে ছবি তুলছেন।

2016_03_04_15_54_00_EqAFU1qe7ecvdRcGJyukjUkO97W1ZE_original

তাদের মাঝখানে সংসদ সদস্য ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাকে নির্বিকারভাবে বসে থাকতে দেখা যাচ্ছে। একটি ছবিতে সেই বশির আহমেদকে সংসদ সদস্যের সঙ্গে কথা বলতেও দেখা যায়। তিনি সাংসদের কাছে নালিশ করছেন বলেই মনে হচ্ছে।

তবে এই ঘটনায় নিজের সম্পৃক্ততা সম্পর্কে জানতে সংসদ সদস্য ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাকে ফোনে চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।এদিকে এসব ছবি ছড়িয়ে পড়ার পর ফেসবুকে অনেকে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। বামপন্থি ছাত্র সংগঠন ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লাকি আক্তার এই ঘটনাকে বাংলাদেশের পতাকার ‘অসম্মান’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন। লাকি লিখেছেন, ‘বশির আহমেদ। পাকিস্তান ক্রিকেটের একজন আইকন সাপোর্টার। দুনিয়াব্যাপী বিভিন্ন মাঠে তিনি পাকিস্তানকে সমর্থন যোগান। শুধু পাকিস্তানকে সমর্থন নয়, পাক-ভারত মৈত্রীর বার্তায়ও তিনি দুনিয়ার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে বয়ে বেড়ান। তেমনই একজন সুপরিচিত ক্রিকেট ভক্ত বাংলাদেশের মাঠে এসে লাঞ্ছিত হলেন। কিন্তু একজন বাংলাদেশি হিসেবে আমি মনে করি বশির আহমেদ যতুটুকু অসম্মানিত হয়েছেন তার চেয়ে বহুগুন বেশি অসম্মানিত হয়েছে আমাদের দেশের পতাকা। ত্রিশ লাখ শহীদের রক্তের দামে কেনা পতাকাকে হাস্যম্পদ করেছেন আমার দেশের জাতীয় সংসদের একজন সম্সমানিত (!) সদস্য। তিনি ঢাকা -১৬ আসনের সাংসদ ইলিয়াস মোল্লা। ক্রিকেট মাঠের আন্তর্জাতিক রীতি অনুযায়ীও ইলিয়াস মোল্লা শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন বলেই আমার ধারনা। ফাইনাল ম্যাচের আগেই এ অপরাধের শাস্তি দেখতে চাই। এবং বিসিবি’র তরফ থেকে বশির আহমেদের কাছে দু:খ প্রকাশ করার দাবি জানাচ্ছি।

ফেসবুকে মাসুদুর রহমান নামে আরেকজন স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘বাংলাদেশ পাকিস্তান ম্যাচের ঘটনা……….একজন পাকির গলায় বাংলাদেশের পতাকা পড়িয়ে যিনি বাংলাদেশের পতাকার অসম্মান করেছেন………তিনি ঢাকা -১৬ আসনের সাংসদ ইলিয়াস মোল্লা…..তার উপস্থিতিতে পাকিস্তানের আইকন সাপোর্টার বশির আহমেদকে জোর করে বাংলাদেশী পতাকা পরিয়েছেন তার চ্যালা চামুন্ডারা………….. কি দরকার ছিলো ……….?????  এ লজ্জা গোটা জাতির ……………. তার কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিৎ………..যারা এ ঘৃণ্য অপরাধের সাথে জড়িত তাদের বিচার চাই ………’

প্রসঙ্গত, এর আগে গত বছর বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচের সময় সুধীর গৌতম নামের একজন ভারতীয় নাগরিককে মিরপুর স্টেডিয়ামে হেনস্থা করার অভিযোগ উঠেছিল।

12688180_984191695008602_5155027932941576698_n

বি.দ্র. ছবিগুলো যিনি প্রথম শেয়ার করেছেন তিনি কিন্তু এ কাজটিকে মোটেও নেতিবাচক মনে করেননি।

ব্রেকিং নিউজঃ