| |

ঐক্যবদ্ব ভাবে আগামি দিনে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ কাজ করে যাবে

আপডেটঃ 8:38 pm | March 04, 2016

Ad

মোঃ মেরাজ উদ্দিন বাপ্পি : বিভিন্ন ধারার রাজনীতি চর্চার মধ্যদিয়ে বদলে যাচ্ছে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ। এর অংশ হিসেবে শীঘ্রই ঘোষনা হতে যাচ্ছে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি।
ঘোষিত হতে যাওয়া কমিটিতে স্থান পাচ্ছে না অছাত্র, সাম্প্রদায়িক, সংগঠনের সুনাম নষ্টকারী ও বহিস্কৃতরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ছাত্র সংগঠনটির নীতি নির্ধারক ও নেতৃত্বদানকারী নেতারা।

সংগঠনটির সূত্রে জানা যায়, গত (০৮.০২.২০১৬) সোমবার রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস.এম জাকির হোসেন স্বাক্ষরিত এক পত্রে রকিবুল ইসলাম রকিবকে সভাপতি ও সরকার মো. সব্যসাচীকে সাধারণ সম্পাদক করে এক বছর মেয়াদী এ কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়।

পত্রে আরও বলা হয় আগামী এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে বলা হয়েছে। আর তাই জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ২-৩ মাসেই ঘোষনা হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলে জেলা ছাত্রলীগের একটি সুত্র জানায়।

সাবেক ও বর্তমান ছাত্রলীগ নেতারা জানান, ছাত্রলীগের নষ্ট হওয়া সুনাম ফিরিয়ে আনতে দীর্ঘ যাচাই-বাচাইয়ের পর শিক্ষিত, দক্ষ দুই ছাত্র নেতাকে ২০১৬ সালের ৮ ফেব্র“য়ারী ছাত্রলীগের কমিটির দায়িত্ব দেয়।

ইতিমধ্যে দুই নেতা ছাত্রলীগকে সু-শৃঙ্খল ও সু-সংগঠিত করে তুলেছেন এবং চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা দায়িত্ব নিয়েছে ১মাস অতিবাহিত হয়ে যাচ্ছে। এসময়ের মধ্যে তাদের বিরুদ্ধে এবং ছাত্রলীগের একটি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে চাঁজাবাজী, টেন্ডারবাজীসহ কোন প্রকার অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ১৯৪৮ সালের ৪ঠা জানুয়ারি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের জন্ম। বৃটিশ পরাধীনতার কবল থেকে মুক্ত হয়ে পাকিস্তানি পরাধীনতায় প্রবেশের এক বছরের মাথায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সেদিন পুর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠা করে বাঙালির মুক্তি সংগ্রামকে এগিয়ে রেখেছিলেন দুই যুগ। তার কিছুদিন পর মুসলিম শব্দটি বাদ দিয়ে একটি অসম্প্রদায়িক ছাত্রসংঘঠন গড়ে তুলেন।

বাংলা ও বাঙালির যা কিছু সোনালী অর্জন তার সবকিছুরই গর্বিত অংশীদার বাংলাদেশ ছাত্রলীগ তাই আজ ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ প্রমান করে দিতে চায় জাতির পিতা বঙ্গবব্দু শেখ মুজিবুর রহমানের গড়া ছাত্রলীগ সর্বশ্রেষ্ঠ ছাত্রসংগঠন।

জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষনা হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে কিনা তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রত্যেক উপজেলা ও জেলার কমিটিতে কেউ সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপে জড়িত আছে কিনা তা জাছাই বাছাই করে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করা হবে। এতে আমাদের একটু সময় লাগবে। তবে পূর্ণাঙ্গ কমিটি কখন ঘোষনা করা হবে সে তারিখ এখনো নির্ধারণ করা হয়নি।

তিনি বলেন, প্রকৃত ছাত্র ও কর্মীদেরকে দিয়ে সবকিছুর উর্ধে উঠে নিরপেক্ষ ভাবে জেলা ছাত্রলীগের আগামী কমিটি গঠন করা হবে। তিনি মনে করেন, রাজনীতিতে আদর্শের লড়াই থাকতে পারে কিন্তু ব্যাক্তির লড়াই গ্রহন যোগ্য নয়।

12744211_948615201858641_5410472296198861268_n

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সরকার মো. সব্যসাচী বলেন, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজিসহ যে কোন ধরনের অপরাধের সঙ্গে জড়িতদের ছাত্রলীগে ঠাঁই নেই। যদি কেউ সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপে জড়িত থাকে, তাদের বিরুদ্বে যেকোন ব্যবস্থা নিতে ছাত্রলীগের বর্তমান নেতৃবৃন্দ পিছপা হবেনা।
তিনি বলেন, ১৩ টি উপজেলা ছাত্রলীগ, কলেজসহ যেসব জায়গায় আহবায়ক কমিটি রয়েছে। এসব কমিটি পূর্ণাঙ্গ রূপ দিতে কাজ চলছে। ছাত্রলীগে নিষ্ঠাবান ও মেধাবীদের একমাত্র স্থান বলেও তিনি জানান।

সব্যসাচী বলেন, বর্তমান ছাত্রলীগ ছাত্রদের স্বার্থে কাজ করবে। গরীব, অসহায় ও সাধারণ জনগনের জন্য কাজ করবে। তিনি বলেন, ছাত্রলীগকে আরো সু-সংগঠিত করে শেখহাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করতে কাজ করে যাবে। শিক্ষা বান্ধব কর্মসূচীগুলোকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ কাজ করবে। কোন পক্ষপাত মুলক কর্মকান্ডে সাথে ছাত্রলীগ জরিত থাকবেনা বলেও জানান তিনি। জননেত্রী শেখ হাসিনার সিদ্বান্তই চুরান্ত সিদ্বান্ত বলে তিনি মনে করেন।

ব্রেকিং নিউজঃ