| |

প্রধানমন্ত্রীর ৭৪ তম জন্মদিনে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড ময়মনসিংহ সার্কেলের পক্ষ থেকে গ্রাহকদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ

আপডেটঃ 7:24 pm | September 29, 2020

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ প্রকৃতির উপর আমাদের দায় শোধ করি, দেশরত্ন শেখ হাসিনার জন্মদিনে বৃক্ষরোপণ করে: এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মবার্ষিকীতে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড ময়মনসিংহ সার্কেলের পক্ষ থেকে গ্রাহকদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ করা হয়। বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন অগ্রণী ব্যাংক ইউনিটের উদ্যোগে গ্রীন এনভায়রণমেন্ট মুভমেন্ট ময়মনসিংহ জেলা শাখার সহযোগিতায় সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠান ও গাছের চারা বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড ময়মনসিংহ সার্কেল এর সুযোগ্য মহাব্যবস্থাপক একেএম শামীম রেজা, ময়মনসিংহ অঞ্চলের সুযোগ্য অঞ্চল প্রধান নুরুল ইসলাম। বিশেষ আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক এডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, যুগ্ম-সম্পাদক কাজী আজাদ জাহান শামীম, ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সভাপতি এহতেশামুল আলম, সহ সভাপতি মাহমুদ হোসেন প্রিন্স, জেলা আওয়ামীলীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুর বাশার ভাষানী, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ময়মনসিংহ জেলার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন সহ জেলা, মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন অগ্রণী ব্যাংক ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক মো: মাঝহারুল হক সোহাগ এর সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন অগ্রণী ব্যাংক ছোট বাজার শাখার সহকারী মহাব্যবস্থাপক আব্দুস সবুর চৌধুরী, অগ্রণী ব্যাংক ময়মনসিংহ শাখার ব্যবস্থাপক মো: শাহজাহান, মেছুয়া বাজার শাখা, গার্লস ক্যাডেট কলেজ শাখা, ত্রিশাল শাখার ব্যবস্থাপক, গ্রীন এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট ময়মনসিংহ জেলার সভাপতি মো: জাকির হোসেন জুয়েল ও সাধারণ সম্পাদক হোসাইন, যুগ্ম সম্পাদক নাজমুল হাসান সাকিব প্রমুখ। মহাব্যবস্থাপক উনার বক্তব্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার পরিবারের সকল সদস্য, বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনের শহীদ, মহান মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদ সহ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যারা শহীদ হয়েছেন তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর কারণে যেমন আমরা স্বাধীন রাষ্ট্র পেয়েছি ঠিক তেমনি তার কন্যার জন্য আমরা আমাদের এই দেশটাকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছি। উনার নেতৃত্বে ইনশাল্লাহ বাংলাদেশ আরো এগিয়ে যাবে। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন বঙ্গবন্ধুর প্রতি উনি আমাদের ব্যাংকের নাম দিয়ে ছিলেন অগ্রণী ব্যাংক। আজ অগ্রণী ব্যাংক অগ্রযাত্রায় সত্যিই অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। পরপর ৬ বছর রাষ্ট্রায়ত্ত সকল ব্যাংকের মধ্যে রেমিটেন্স আহরণে প্রথম স্থান অর্জন করেছে। অগ্রণী ব্যাংকের খেলাপি ঋণ অন্যান্য ব্যাংকের তুলনায় অনেক কম। অগ্রণী ব্যাংকের অর্থায়নে মেয়র হানিফ সেতু নির্মিত হয়েছে, এবং পদ্মা সেতুতে অগ্রণী ব্যাংক এককভাবে ফরেন কারেন্সি সরবরাহ করছে। মাননীয় এমডি মহোদয়ের নেতৃত্বে অগ্রণী ব্যাংক আরো এগিয়ে যাবে বলে তিনি তার বক্তব্যে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ব্রেকিং নিউজঃ