| |

জাবিতে অনলাইনে শিক্ষক নিয়োগ বন্ধের দাবি শিক্ষকদের একাংশের

আপডেটঃ 12:08 am | November 11, 2020

Ad

করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকাকালীন সময়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব রিমোট সেন্সিং (আইআরএস) এর শিক্ষক-কর্মকর্তা নিয়োগের জন্য অনলাইনে মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ না করার দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের আওয়ামীপন্থি শিক্ষকদের একাংশের সংগঠন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ। সোমবার (০৯ নভেম্বর) বিকেলে সংগঠনটির পক্ষ থেকে অনলাইনের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক খবির উদ্দিন বলেন, আইআরএসের কাঠামো বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য ইনস্টিটিউট থেকে আলাদা। আইআরএসের নাম ও কারিকুলাম নিয়ে অমীমাংসিত বিতর্ক রয়েছে। এটি ব্যক্তি বিশেষকে সুবিধা প্রদানের জন্য তৈরি করা হয়েছে। এসব সত্ত্বেও এ ইনস্টিটিউটে এর আগেও দুবার শিক্ষক নিয়োগ দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। আমাদের প্রতিবাদের মুখে তা স্থগিত করা হয়েছে। আইআরএসের বিষয়ে তদন্তের জন্য উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম দুই উপ-উপাচার্যের সমন্বয়ে একটি উচ্চপর্যায়ের কমিটি গঠন করে দেন। তবে করোনার কারণে এ কমিটি কাজ করতে পারেনি বলে জানা গেছে। তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কাজ সরাসরি উপস্থিতির মাধ্যমে চলছে। সরকারি সব নিয়োগ শারীরিক উপস্থিতির মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এরই মধ্যে আইআরএসের শিক্ষক নিয়োগের জন্য ভার্চুয়াল বোর্ড বসতে যাচ্ছে। আইআরএসের মতো ছাত্র ও সিলেবাসহীন একটি ইনস্টিটিউটের শিক্ষক নিয়োগ অনলাইনে হলে শিক্ষকের মান যাচাই যথাযথ হবে না। এ সময় আইআরএসের বিষয়ে গঠিত কমিটির তদন্তকাজ দ্রুত সম্পন্নের পাশাপাশি আইআরএস নিয়ে উত্থাপিত অভিযোগগুলো শিক্ষা পর্ষদে আলোচনা করা ও সরাসরি উপস্থিতির মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগের দাবি জানান তারা। সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক আব্দুল জব্বার হাওলাদার, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক তারেক রেজা, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার হাসান মাহমুদ প্রমুখ।

ব্রেকিং নিউজঃ