| |

ময়মনসিংহে সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

আপডেটঃ 11:23 pm | December 05, 2020

Ad


মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ সাম্প্রদায়িক অপশক্তির আস্ফালন ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের প্রতিবাদে ‘৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের ছাত্রনেতৃবৃন্দের উদ্যোগে ৫ ডিসেম্বর ২০২০ শনিবার শহীদ ফিরোজ-জাহাঙ্গীর চত্বরে সকাল ৯টায় সমাবেশ, জাগরণী সঙ্গীত ও কবিতা আবৃত্তি এবং বেলা ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, আমোকসুর সাবেক ভিপি ও বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো: মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল এর সভাপতিত্বে এবং জেলা জাসদ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা জাসদের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আলহাজ¦ মো: নজরুল ইসলাম চুন্নু’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্রনেতা ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি ও জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট এমদাদুল হক মিল্লাত, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ও আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সাদেক খান মিল্কী টজু, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক কাজী আজাদ জাহান শামীম, এম. এ কুদ্দুস, শওকত জাহান মুকুল, আবু সাঈদ দীন ইসলাম ফখরুল, প্রচার সম্পাদক আহসান মোহাম্মদ আজাদ, সম্মানিত সদস্য ফিরোজ আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সম্মানিত সদস্য এডভোকট ইমদাদুল হক সেলিম, জেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক শাহ শওকত ওসমান লিটন, আমুকসু‘র সাবেক জিএস মোতাহার হোসেন লিটু, স্বেচ্ছাসেবকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা আবু সাঈদ কায়সার দীপু, মঞ্জুরুল আলম লাভলু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি তাজ উদ্দিন আহমেদ রানা, জাসদ নেতা রতন সরকার, এস. এম বাবুল, পারভেজ শাহনেওয়াজ লিটন, আমিনুল ইসলাম আমিন, সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাডভোকেট আবদুল মোত্তালেব লাল, অ্যাডভোকেট হাবিবুজ্জামান খুররম, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি অধ্যাপক দিলরুবা সারমীন, নুরজাহান মিতু, সাধারন সম্পাদক নারী নেত্রী ড. সেলিনা রশিদ, জিকেপি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি ড. মো: সিরাজুল ইসলাম, অধ্যক্ষ সুলতানা পারভীন, মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রাশেদা তাহমিনা প্রীতি, জেলা যুবলীগের নেতা গোলাম মেহেদী হাসান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রচার সম্পাদক সুমন তাজ, মুক্তিযুদ্ধা সন্তান ফরহাদ আলম খান সোহেল, মানবাদিকার কর্মী অ্যাডভোকেট আমিনা বেগম রুবী, মহিলা শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেত্রী সৈয়দা রোকেয়া আফসারী শিখা, মহানগর শহিলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আফসানা আক্তার, সাধারন সম্পাদক হেলেনা আক্তার প্রমুখ। এরপূর্বে জাগরণী সঙ্গীত পরিবেশন করেন উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী, আওয়ামী শিল্পী গোষ্ঠী ও আইইডি। কবিতা আবৃত্তি করেন কবি এম. বাহাদুর, কবি সেলিনা রশিদ। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, আবহমানকাল থেকে আলেম সমাজ ওয়াজ মাহফিল করে আসছেন, ভবিষ্যতেও করবেন। কিন্তু ওয়াজ, মাহফিল, বয়ানের নামে বাংলার আবহমানকালের অসাম্প্রদায়িক সংস্কৃতিকে বিনষ্ট করে দেশে সাম্প্রদায়িকতার বিষপাস্প ছড়ানোর চেষ্টা করলে তাদেরকে অবশ্যই প্রতিহত করা হবে। ফতোয়া দিয়ে দেশ স্বাধীন হয়নি। অসংখ্য শহীদের আত্মদান এবং নারীর সমভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীন দেশে ১৯৭১ সালে মীমাংসিত বিষয় নিয়ে নতুন তৎপরতা বরদাশত করা হবে না।
নেতৃবৃন্দ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষ্কর্য নির্মানের বিরোধিতা ও ভাষ্কর্য ভাঙ্গার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ধর্মকে ব্যবহার করে হেফাজত-খেলাফতিদের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নের বিরুদ্ধে সরকারকে অবশ্যই কঠোর অবস্থান গ্রহণ করতে হবে। নেতৃবৃন্দ সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে দেশের ছাত্র-জনতাকে একাত্তুরের মতই ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।

ব্রেকিং নিউজঃ