| |

সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চায় ত্রিশালের মানুষ

আপডেটঃ 9:11 pm | February 10, 2021

Ad

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চায় ত্রিশালের মানুষ। সাধারন মানুষ চায় তারা যাতে সাচ্ছন্দে ভোট দিতে পারে। কোন রকম বাধা বিপত্তি, হুমকি দমকি, কেন্দ্র দখল, বেদখল, হামলা, মামলা, ভাংচুর, কেন্দ্র পুড়িয়ে দেয়া, পোষ্টার ছেড়া, হোন্ডার মহড়ার ঘটনা দেখতে চায়না ত্রিশালবাসী। ত্রিশাল পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ১৪ ফেব্রয়ারী। পৌর নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের চেয়ে জগ প্রতিকের প্রার্থী আনিছের অবস্থা অনেকাংশে ভাল থাকায় একটি মহল এলাকায় হুমকি দমকি দিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টির পায়তারা করছে। গত ২দিন যাবৎ নৌকা প্রার্থীর মেয়ের জামাই রনির হুকুমে ১নং ওয়ার্ড ভার্সিটি এলাকায় প্রায় অর্ধশত হোন্ডা বহর নিয়ে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। রনি জাতীয় কবি নজরুল ইসলাম বিশ^বিদ্যালয়ের সেকশন অফিসার হয়েও নির্বাচনী কর্মকান্ডে জড়িত হয়ে সাধারন মানুষের মাঝে ভয়ভীতির পরিবেশ সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। নির্বাচনী আচরন বিধিতে রাত ৮টার পর নির্বাচনী কার্যক্রম বন্ধ থাকার নির্দেশনা থাকলেও ১নং ওয়ার্ড ভার্সিটি এলাকায় রাত ৩টা / ৪টা পর্যন্ত অপরিচিত লোকজন এর হোন্ডা মহড়া চলে বলে জানায় একটি সুত্র। হোন্ডা বাহিনীর লোকজন পার্শবর্তী উপজেলার বলে দাবী করেন জগ প্রতিকের সমর্থকরা। তারা আরো দাবী করেন, ভাসিটি এলাকাটি ১নং ওয়ার্ড। আর রনি ভার্সিটির সেকশন অফিসার হওয়ায় ৩য়/৪র্থ শ্রেনীর কর্মচারীদের চাপ প্রয়োগ করে তাদের পক্ষে কাজ করার জন্য প্রভাবিত করছে। করোনার কারনে ভার্সিটি বন্ধ থাকলেও নির্বাচনী কাজে বহিরাগতরা হলে অবস্থান করতে পারে। মেয়র আনিছ বলেন, একটি বাহিনী আমার পক্ষে মানুষের জনস্রোত, গণজোয়ার দেখে ভিত। তারা নানা অপকৌশল-কূটকৌশল করছে এবং নানা রকম বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছে। আমি তাদের বলে দিতে চাই, কোনো কিছু কাজ করবে না। জনগণের স্রোতে সব ভেসে যাবে। ভোট ডাকাতিও করতে পারবেন না। যে জনস্রোতটা সৃষ্টি হয়েছে, গণজোয়ার তৈরি হয়েছে, এটি যেন অব্যাহত থাকে। মেয়র আনিছ জনগনের উদ্যেশ্যে বলেন, কোনো কিছুতেই আপনারা বিভ্রান্ত হবেন না। আপনারা আপনাদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাবেন। ইনশাল্লাহ জনগনের ভালবাসায় জগ মার্কার বিজয় সুনিশ্চিত।

ব্রেকিং নিউজঃ