| |

বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে হলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারন করতে হবে— এড. জহিরুল হক খোকা

আপডেটঃ 1:59 am | March 28, 2016

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক : মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে ময়মনসিংহ পৌরসভার উদ্যোগে পৌরসভায় বসবাসরত মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে বিশাল গন সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে।
২৭ মার্চ বিকাল ৫টায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান এডভোকেট তারেক স্মৃতি অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু‘র সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা।  ময়মনসিংহ জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সেলিম সাজ্জাদের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুল হক চিশতী (বাবুল চিশতী), ময়মনসিংহ মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের আহবায়ক বীরমুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার হোসেন, ময়মনসিংহ পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো: নজরুল ইসলাম প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা সংবর্ধনা অনুষ্ঠান উপ-কমিটির আহবায়ক কাউন্সিলর তাজুল আলম তাজুল। এসময় বীরমুক্তিযোদ্ধা জিয়া উদ্দিন আহমেদ, বীরমুক্তিযোদ্ধা সেলিম সরকার, কাউন্সিলর মাহবুবুল আলম হেলাল, মাহবুবুর রহমান দুলাল,শরাফ উদ্দিন, হানিফ মো: ওয়ালীউলাহ, মহিলা কাউন্সিলর খোদেজা খাতুন, রোকেয়া হোসেন, রোকশানা পারভীন কাজল, হামিদা পারভীন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের আহবায়ক হুমায়ুন রশিদ সোহাগ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।  সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ প্রশাসক আলহাজ্ব এডভোকেট জহিরুল হক খোকা, পৌরসভার মেয়র ইকরামুল হক টিটু সহ অতিথিবৃন্দ পৌরসভায় বসবাসরত মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সংবর্ধনা প্রদান করেন। ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে হলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারন করতে হবে। স্বাধীনতা বিরোধীদের সম্পর্কে সজাগ থাকতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের ন্যায্য দাবী সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে আদায় করে যাচ্ছেন। ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের পক্ষ থেকেও মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা সহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান। ময়মনসিংহ পৌরসভার পক্ষ থেকে এরকম মহতি উদ্যোগ গ্রহন করায় তিনি পৌরসভার মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটুর ভুয়সী প্রসংশা করেন। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুল হক চিশতী (বাবুল চিশতী) বলেন, বৃহত্তর ময়মনসিংহের সকল মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে এই মঞ্চে একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে চাই। ময়মনসিংহ জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার তারিখ ঘোষনা করবেন। তিনি বলেন, ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র স্থান নির্ধারন করে দিলে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সৌধ, স্মৃতিস্তম্ব সহ মুক্তিযুদ্ধের নিদর্শন নির্মান করে দিব। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি সম্মান দেখানোর নিদর্শন স্বরুপ তিনি ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়রের প্রতি কৃতঞ্জতা প্রকাশ করে এডভোকেট তারেক স্মৃতি মিলনায়তনের জন্য ৭দিনের মধ্যে সোফাসেট প্রদানের প্রতিশ্রে“াতি প্রদান করেন। ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু বলেন, বর্তমান সরকার মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি বলেই মুক্তিযোদ্ধাদের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করেছে। ভাতা বৃদ্ধি করেছে। চিকিৎসা সুবিধা বৃদ্ধি করেছে। মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের চাকুরী প্রদান করছে। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদেরণন্নয়নে কাজ করতে পারলে নিজেকে ভাগ্যবান মনে হয়। তিনি বলেন, পৌর এলাকায় বসবাসরত সকল মুক্তিযোদ্ধার পৌর ট্যাক্স মওকুফ করা হয়েছে। এছাড়াও শহরের বিজয় স্মৃতি স্তম্ব, স্মৃতিসৌধ সহ মুক্তিযোদ্ধাদের অনেক সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করা হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ