| |

‘অটিস্টিকদের’ পাশে দাঁড়ান: পুতুল

আপডেটঃ 5:21 pm | April 02, 2016

Ad

আলোকিত ময়মনসিংহ : বিভিন্নভাবে প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়াতে সব শ্রেণি পেশার মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন গ্লোবাল অটিজম পাবলিক হেলথ ইনিশিয়েটিভ ইন বাংলাদেশের জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা হোসেন পুতুল।

তিনি বলেন, ‘অটিস্টিক জনগোষ্ঠী গুরুত্বপূর্ণ, তাদের কিভাবে নিজের পায়ে দাঁড়াতে সহায়তা দিতে পারবো সেটা ভাবা দরকার। শুধু ভাই-বোন না, বাবা-মা না, পুরো পরিবার, পুরো সমাজকে সার্পোট দিতে হবে। প্লিজ আপনারা তাদের পাশে দাঁড়ান, সহায়তা দিন।’

শনিবার (২ এপ্রিল) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আর্ন্তজাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) নবম আন্তর্জাতিক অটিজম সচেতনতা দিবসে এক ভিডিও বার্তায় এই আহ্বান জানান পুতুল।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সায়মা হোসেন পুতুল আরও বলেন, ‘কাউকে ফেলে রেখে এদেশটা উন্নত হবে না। আমরা কাউকে ভুলে যাবো না। আমাদের দেশের উন্নয়নে আমরা যেন বিভিন্নভাবে প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে নিয়ে এগুই।’

তিনি বলেন, সবাই মিলে মিশে আমাদের এই দেশটাকে সোনার বাংলা গড়ে তুলি। সব মানুষ মিলে, তাদের কোনো ডিসঅ্যাবিলিটি থাকুক বা না থাকুক।

অটিস্টিকদের স্বাভাবিক জীবনের অংশ করতে সরকারের নানা উদ্যোগের কথা তুলে ধরে পুতুল জানান, বাংলাদেশে ন্যাশনাল স্টিয়ারিং কমিটিতে ১৪টি মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

তিনি বলেন, প্রথমেই রোগ নির্ণয় করা, চিকিৎসা দেওয়া, কমিউনিটি লেভেলে ট্রিটমেন্ট দেওয়া, বাবা-মাকে শিক্ষা দেওয়া, স্কুলে শিক্ষা, কর্মজীবী করা সব কিছু নিয়ে চিন্তা করছি আমরা। অল্প অল্প করে এগুচ্ছি।

কাউকে অটিস্টিক না বলার অনুরোধ জানিয়ে অটিজম বিশেষজ্ঞ পুতুল  বলেন, এটা শুধু ওই মানুষটাকে ‘অ্যাফেক্ট’ করে না, গোটা পরিবারকে ‘অ্যাফেক্ট’ করে।

‘অটিজম নামটা এত বেশি পরিচিত হয়ে গেছে যেকোনো অবস্থা বা যাই হোক আমরা সেটাকে অটিজম বলতে চাই। এত সহজে অটিস্টিক বলি! যখন এই কথাটা বলা হয়, তখন এটা খুব কষ্টকর। এটা সহজে বলা ঠিক না।’

এবারে অটিজম দিবসের স্লোগান ‘অটিজম লক্ষ্য ২০৩০: স্নায়ু বিকাশের ভিন্নতার একীভূত সমাধান’।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব চৌধুরী মো. বাবুল হাসানের সভাপতিত্বে অন্যান্যের বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন, জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসরীন আরা সুরাত আমিন।

আলোচনা শেষে অটিস্টিক শিশু-কিশোররা মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক পরিবেশনা করে।

ব্রেকিং নিউজঃ