| |

ঈশ্বরগঞ্জে বিভিন্ন ইউনিয়নে নির্বাচনী সহিংসতায় ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক

আপডেটঃ 8:41 pm | April 13, 2016

Ad

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে আগামী ২৩ এপ্রিল তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে বিভিন্ন ইউনিয়নে সহিংসতা চলছে। প্রায় ১১টি ইউনিয়নেই এ সহিংসতা অব্যাহত আছে। উচাখিলা ইউনিয়নের জা’পা প্রার্থীর পোস্টার ও ব্যানার ছিড়ে আগুন, জাটিয়া, সরিষা ও তারুন্দিয়া ইউনিয়নে আ’লীগ ও আ’লীগ বিদ্রোহীদের মধ্যে সংঘর্ষ, প্রতীকে আগুণ, বিভিন্ন প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা ভাংচুর, মাইজবাগ ও রাজিবপুরে জা’পা, আ’লীগ ও আ’লীগ বিদ্রোহীর মধ্যে সংঘর্ষে শিশু সহ হতাহতের ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা চলছে। ফলে নির্বাচনী এলাকা জুড়ে ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।
জানা যায়, জাতীয় পার্টির দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আনোয়ারুল হাসান খান সেলিম অভিযোগ করেন, মঙ্গলবার রাতে তার প্রচার কাজে বাঁধা দিয়ে একটি মোটরসাইকেলে ভাংচুর করে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর লোকজন। এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় মোটরসাইকেল শো’ডাউন করে এলাকায় উত্তেজনাকর শ্লোগান দিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। ওই অবস্থায় তার কর্মীরাও মিছিল বের করলে উত্তেজনা তৈরী হয়। খবর পেয়ে রাত ৩ টার দিকে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। পরে রাতে আাওয়ামী লীগের প্রার্থীর লোকজন মরিচারচর মাইজপাড়, চৌরাস্তা বাজার, নামাপাড়া নতুনচর ও চরআলগী বটতলা এলাকায় তার সকল পোস্টার ও ব্যানার ছিরে আগুনে পুড়িয়ে দেয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। আওয়ামী লীগের দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. শফিকুল ইসলামের অভিযোগ, নির্বাচনী আচরণ বিধি লংঘন করে লাঙলের পক্ষে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মোটরসাইকেলে বিভিন্ন এলাকায় উত্তেজনা কর শ্লোগান দিয়ে শো’ডাউন করে। জা’পা প্রার্থীর পোস্টার ছিড়ে ফেলা ও পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ অসত্য দাবি করে বলেন, নিজেদের লোকজন দিয়ে পোস্টার ছিড়ে তার উপর দোষ চাপানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।
এদিকে আঠারবাড়ি ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থীর অভিযোগ আ’লীগ প্রার্থী তার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে এবং প্রচারনা কাজে বাঁধা দিচ্ছে। সরিষা ইউনিয়নে আ’লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলে সেখানে প্রায় ৩২ জন আহত হয়। সোহাগীতে জা’পা প্রার্থীর অভিযোগ, আ’লীগ প্রার্থীর কর্মীরা নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে। জাটিয়ায় আ’লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থী একে অপরের বিরুদ্ধে নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের অভিযোগ করেছেন। মাইজবাগে আ’লীগ প্রার্থীর অভিযোগ, জা’পা সমর্থকরা প্রার্থীর উপর হামলা চালিয়েছে। রাজিবপুর ইউনিয়নে আ’লীগ ও আলীগ বিদ্রোহী একে অন্যের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ করেছেন। তারুন্দিয়া ইউনিয়নের আ’লীগ ও আ’লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী একে অন্যের বিরুদ্ধে প্রতীকে আগুণ ও পোষ্টার ছেঁড়ার অভিযোগ করেছেন।
ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) রুহুল আমীন তালুকদার জানন, অভিযোগ পাওয়ার পর পরই সংশ্লিষ্ট এলাকায় পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনা হয়েছে। এ পর্যন্ত বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে লিখিত ভাবে ৫টি অভিযোগ পেলেও মৌখিক ভাবে অসংখ্য অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। অভিযোগগুলো খতিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ব্রেকিং নিউজঃ