| |

জাতীয় কবি স্মরণে নাটক “বাদল বরিষণে”

আপডেটঃ 2:47 am | June 04, 2016

Ad

হাসিবুর রহমান তুষার

০৩জুন শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় এড. তারেক স্মৃতি অডিটরিয়াম(টাউনহল) এ জাতীয় কবি স্মরণে মঞ্চস্থ হল জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা ও পরিবেশনা বিদ্যা বিভাগ প্রযোজিত কাজী নজরুল ইসলামের গল্প অবলম্বনে
নুসরাত জাহান শিমু’র নাট্যরূপ, পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় নাটক “বাদল বরিষণে”।

বাদল বরিষণে এক কালো পাহাড়ী মেয়ের প্রেম ও জীবন বাস্তবতার গল্প। নাটকে কাজেরিয়া চরিত্রটি ঐ পাহাড়ী সম্প্রদায়ের অবহেলা আর তাচ্ছিল্যেরর প্রতীক। শহুরে এক পরদেশীর হঠাৎ আগমনে এবং কাজেরিয়ার প্রতি তার ভাললাগা, সমাজের সামাজিকতায় বেষ্টিত কাজেরিয়া প্রত্যাখ্যান করে। অবশেষে পরদেশীর জন্য অপেক্ষা করতে করতে শেষে আত্মঅনশনের মাধ্যমে মৃত্যুই যেন প্রতিটি পাহাড়ী মানুষের জীবন প্রতিচ্ছবি।

নির্দেশক নুসরাত জাহান শিমু বলেন, ‘নাট্যরচনা ও নাট্যাভিনয় দুটি চর্চাই জীবনমুখী হয়। প্রথমত আমার মনে হয় মঞ্চে আমি যা করছি তা আসলে পুরোপুরি শিল্প হয়ে উঠছে কিনা সেটাই মূখ্য বিষয়। গল্পকারের গল্পে যে কাহিনী উঠে এসেছে তা সমসাময়িক অবহেলিত বাস্তবতার যেন এক চিরন্তন প্রতিচ্ছবি। তাই আমি নাটকের গল্পের সাথে মিল রেখে পৌরণিক চরিত্রও মঞ্চে এনেছি যৌক্তিকভাবেই।’ তিনি আরও বলেন, এই গল্পের একটি বাক্যে আমি মুগ্ধ হয়েছিলাম। সেটি হল-“সৌন্দর্য আসলে বাহিরের নয়, ভিতরের। দেহের নয়, অন্তরের।”

নাটকটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিপাশা সাহা। অন্যান্য  চরিত্রে ছিলেন পান্না, ইউসুফ, সুমাইয়া, পাপিয়া, সজল, সৌরভ প্রমুখ। নেপথ্যে ছিলেন রাফিয়া সাঈদ, মহিতোষ, মনির, আল আমিন, আশিক, বিলকিস, নওরিন, মিষ্টি সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন সৈয়দ মামুন রেজা, বিভাগীয় প্রধান, নাট্যকলা ও পরিবেশনা বিদ্যা বিভাগ, জা.ক.কা.ন.ই.বি.।

_DSC0382

এটি ছিল নাটকটির দ্বিতীয় মঞ্চায়ন। এর আগে জা.ক.কা.ন.ই.বি. কর্তৃক জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম -এর ১১৭তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সাংস্কৃতিক পর্বে গাহি সাম্যের গান মঞ্চে এর ১ম মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়।

ব্রেকিং নিউজঃ