| |

ভালুকায় এক আলেমসহ এক সপ্তাহে ২খুন

আপডেটঃ 7:42 pm | August 20, 2016

Ad

ভালুকা প্রতিনিধি: ভালুকা উপজেলার রাজৈ গ্রামের হোসেন আলী ওরফে ছেলামত মুন্সীকে (৭০) ১৯ আগষ্ট শুক্রবার সন্ধ্যায় খুন করা হয়েছে।
জানাযায়, মধ্যরাজৈ জামে মসজিদের সাবেক ঈমাম রাজৈ গ্রামের মৃত সুবেদ আলী মন্ডলের ছেলে হোসেন আলী ওরফে ছেলামত মুন্সী বাড়ি ফিরছিলেন। নিহতের ছেলে হাবিবুল্লাহ বাদী হয়ে গফরগাঁও উপজেলার কান্দি গ্রামের সরজুল মিয়ার ছেলে ঘাতক মাহবুল (২৫), রাজৈ গ্রামের আবুল কাশেম দপ্তরীর ছেলে ইসমাইল (১৯) ও একই গ্রামের হোসেনের (৩০) নাম উল্লেখ করে আরো অনেকের বিরুদ্ধে ২০ আগষ্ট শনিবার সকালে ৩জনের নাম উল্লেখ করে ভালুকা মডেল থানায় (নম্বর -১৪) হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ভালুকা মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হজরত আলী জানান, হোসেন আলী ওরফে ছেলামত মুন্সীকে দা দিয়ে ঘার ও পিঠে উপর্যুপরি কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলা রুজু করা হয় এবং ভালুকা ও গফরগাঁও থানা যৌথভাবে আসামী গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ চাপাতির একটি কর্ভার উদ্ধার করেছে। ১৯ আগষ্ট শুক্রবার উপজেলার রাজৈ বাজার থেকে নিজ বাড়ীতে যাওয়ার পথে রঞ্জিত মাস্টারের বাড়ির কাছে রাস্তায় পাশে গফরগাঁও উপজেলার কান্দি গ্রামের সরজুল মিয়ার ছেলে মাহবুল (২৫) তাকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে ফেলে যায়। খোঁজ পেয়ে পরিবার ও স্থানীয় লোকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর চিকিৎসাধিন অবস্থায় মারা যান।
উল্লেখ্য ১৪ আগষ্ট রবিবার সকালে ভালুকা উপজেলার ৩নং ভরাডোবা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব আইয়ুব আলী সরকারের ছেলে মেহেদী হাসান পাপ্পুর লাশ ভালুকা ডিগ্রি কলেজের পাশের খাদ থেকে উলঙ্গ অবস্থায় উদ্ধার করেন ভালুকা মডেল থানা পুলিশ। পাপ্পুর ঘারের পিছনে আঘাতে চিহ্ন ছিল।

ব্রেকিং নিউজঃ