| |

১১১ চিকিৎসকের বিষয়ে জানতে চেয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট

আপডেটঃ 1:50 am | August 30, 2016

Ad

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ পাওয়া ১১১ জনের মধ্যে যোগ্যদের কিভাবে চাকরিতে রাখা যায়- তা জানাতে বলেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। গতকাল সোমবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে ৫ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ  দেন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে আগামী রোববার (০৪ সেপ্টেম্বর) আদালতকে এ বিষয়টি অবহিত করবেন অ্যাটর্নি জেনারেল।  ওইদিন পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য করা হয়েছে। আদালতে ১১১ জন চিকিৎসকদের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ড. কামাল হোসেন, রোকন উদ্দিন মাহমুদ, কামরুল হক সিদ্দিকী ও এ এম আমিন উদ্দিন। বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। ২০০৫ সালের ১৮ অক্টোবর চিকিৎসক নিয়োগের বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ওই বিজ্ঞপ্তি অনুসারে ২০০৫ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০০৬ সালের জানুয়ারি মাস পর্যন্ত কয়েকশ’ চিকিৎসককে নিয়োগ দেওয়া হয়। আইন লঙ্ঘন করে এসব নিয়োগ দেওয়া হয়েছে অভিযোগ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) বর্তমান সভাপতি ইকবাল আর্সলান। ওই রিটের শুনানি নিয়ে ২০০৬ সালের ০২ জানুয়ারি হাইকোর্ট রুল জারির পাশাপাশি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ও নিয়োগের প্রক্রিয়ার কার্যক্রম স্থগিত করেন হাইকোর্ট। ওই রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে চিকিৎসকদের নিয়োগকে অবৈধ ঘোষণা করে ২০১০ সালের ১৪ ডিসেম্বর রায় দেন হাইকোর্ট। এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন চিকিৎসক খায়রুন নাহারসহ অন্যরা। গত ২২ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের রায় বহাল রেখে আপিল খারিজ করে দেন আপিল বিভাগ। আপিল বিভাগের ওই রায়ের রিভিউ চেয়ে আবেদন জানান চিকিৎসকরা। গতকাল সোমবার রিভিউ আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

ব্রেকিং নিউজঃ