| |

ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত এর সংক্ষিপ্ত জীবনী

আপডেটঃ 3:12 pm | October 20, 2016

Ad

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী: নবগঠিত ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত ১৯৭৭ ইং সালে ময়মনসিংহের আকুয়ায় জন্ম গ্রহন করেন। তিনি বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় ধর্মমন্ত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যকরী কমিটির সদস্য, ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি, ময়মনসিংহ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান, ময়মনসিংহ সদর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য কারা নির্যাতিত, ময়মনসিংহের মাটি ও মানুষের নেতা বলে খ্যাত, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একনিষ্ট সৈনিক, শহীদ আলমগীর মনসুর মেমোরিয়াল মিন্টু কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মতিউর রহমানের জ্যাষ্ট পুত্র। মাতা শেফালী বেগম ময়মনসিংহ জেলা মহিলালীগের সভানেত্রী, অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষিকা। উনার এক চাচা বিশিষ্ট সাংবাদিক বীরমুক্তিযোদ্ধা জিয়া উদ্দিন আহমেদ। আরেক চাচা ময়মনসিংহ জেলা মটর মালিক সমিতির সভাপতি, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মমতাজ উদ্দিন মন্তা। অপর চাচা আকুয়া ইউনিয়ন পরিষদের স্বর্নপদকপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান, উপজেলা চেয়ারম্যান এসোসিয়েশনের সভাপতি, কোতোয়ালী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আফাজ উদ্দিন সরকার। চাচাত ভাই ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সরকার সব্যসাচী। অপর চাচাত ভাই মহানগর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ফয়জুর রাজ্জাক উষান।
মোহিত উর রহমান শান্ত ছোট বেলা থেকেই মেধাবী ছাত্র ছিলেন। ময়মনসিংহ জেলা স্কুল থেকে ১৯৯২ সালে এস.এস.সি ও ১৯৯৪ সালে আনন্দ মোহন সরকারী কলেজ থেকে এইচ.এস.সি পরিক্ষায় কৃতিত্বে সহিত উত্তীর্ন হন। উচ্চ শিক্ষার জন্য তিনি ভারতের দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। সেখান থেকে ইংরেজীতে অনার্স পাশ করে বাংলাদেশে ফিরে আসেন। ছাত্র জীবনে তিনি আনন্দ মোহন কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য, ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ময়মনসিংহ ছায়াবানী সিনেমা হলে জঙ্গী হামলার পর তার পিতা অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সাথে তাকেও মিথ্যা মামলায় কারাগারে পাঠান হয়। জোট সরকারের আমলে তিনি ২বার কারাবরন করেন। আওয়ামীলীগ বিরোধী দলে থাকা অবস্থায়  উনার নামে ৮টি মিথ্যে মামলা ছিল। উনার পিতা বীরমুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মতিউর সহচার্যে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে তিনি সক্রিয় ভাবে অংশ গ্রহন করেন। ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগে শিক্ষা ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক হিসাবে কো-অপট সদস্য হিসাবে নির্বাচিত হন। ক্রীড়া প্রেমিক মোহিত উর রহমান শান্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট অপারেশন কমিটির সদস্য ও ময়মনসিংহ জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি দীপু সায়েম ক্রীড়া চক্রের সভাপতি ও ঘাসফুলের উপদেষ্টা। বীরমুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমান একাডেমী ও মোহর রাজ্জাক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। ময়মনসিংহ কমার্স কলেজ, ময়মনসিংহ সাইন্স এন্ড টেকনোলজি কলেজ, নেক্সাস কার্ডিয়াক হাসপাতালের ডিরেক্টর। বাংলাদেশ রাইফেল্স ক্লাবের জেলা কমিটির আজীবন সদস্য। তিনি ময়মনসিংহ জেলা রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য। ব্যাক্তি জীবনে তিনি বিবাহিত।

ব্রেকিং নিউজঃ