| |

ময়মনসিংহের ছায়াবাণী সিনেমা হলে শুক্রবার ছিলো ‘হ্যাপি আয়নাবাজি ডে’

আপডেটঃ 3:33 am | October 29, 2016

Ad

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী : ‘হ্যাপি আয়নাবাজি ডে’ লিখে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন ময়মনসিংহের অনেকেই। দেশের মোট ২১টি প্রেক্ষাগৃহে চলছে ‘আয়নাবাজি’। এর মধ্যে ময়মনসিংহের ছায়াবাণী সিনেমা হলেও চলছে ছবিটি।
শুক্রবার (২৮ অক্টোবর) রাত ৯ : ৩০ মিনিটে ছায়াবাণী সিনেমা হলের সামনে গিয়ে দেখাযায় অসংখ্য দর্শকের ভিড়। ৫ সপ্তাহ ধরে চলা ছবিটি প্রতিদিন ৪ টি করে প্রদর্শনী চলছে। যা তাদের প্রেক্ষগৃহের ইতিহাসে সর্বোচ্চ প্রদর্শনীর রেকর্ড।
প্রেক্ষগৃহ কর্তৃপক্ষ মাহবুব ই ক্ষুদা রানা বলেন, ‘ছবিটি নিয়ে আমরা বিপুল সাড়া পেয়েছি। তাই ময়মনসিংহের ছায়াবাণী সিনেমা হলে এ ছবিটিই বেশি প্রধান্য পাচ্ছে। দিনে সর্বোচ্চ ৪ টি করে প্রদর্শনী করার পরও দর্শক সামলানো বেশ কঠিন হয়ে পড়ছে।
তিনি আরও জানালো, এর আগে গিয়াসউদ্দিন সেলিমের ‘মনপুরা’ ছবিটিও এমন সাড়া ফেলেছিল। ছবিটি টানা ৪ সপ্তাহ এই সিনেপ্লেক্সে চলে। তবে ‘আয়নাবাজি’ সে রেকর্ডও ছাড়িয়ে। তিনি বলেন, ২০০২ সালের ৭ ডিসেম্বর ময়মনসিংহের অলকা, ছায়াবাণী, পূরবী ও অজন্তা সিনেমা হলে প্রায় একই সময়ে জঙ্গীরা বোমা হামলা চালায়। এই বোমা হামলার পর আজ আয়নাবাজি দেখার জন্য ময়মনসিংহের মানুষ সিনেমা হলে ভালো মানের সিনেমা দেখতে আসছে।
তিনি আরও বলেন, চলচ্চিত্রপাড়ায় একটি কথার খুব চল ছিলো ‘সিনেমার সেই দিন আর নেই।’ কিন্তু সেই দিন এখন আয়নাবাজি‘র মধ্য দিয়ে ফিরে এলো।
ময়মনসিংহের ছায়াবাণী সিনেমা হলে যে কোনো ছবি বড়জোর দুই সপ্তাহ চলে। কিন্তু ‘আয়নাবাজি’ টানা পাঁচ সপ্তাহ হাউজফুল ব্যবসা করেছে সেখানে। পরিবার নিয়ে সবাই এটি দেখছেন। শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধরাও আছেন এই দলে। দর্শকদের মধ্যে নারীদের উপস্থিতি লক্ষণীয়। ‘আয়নাবাজি’ দেখার সময় দর্শকের মধ্যে উচ্ছ্বাস ছিল লক্ষণীয়। অমিতাভ রেজা পরিচালিত এই ছবিতে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, নাবিলা, আরিফিন শুভ, পার্থ বড়–য়াসহ অনেকে।

ব্রেকিং নিউজঃ