| |

সরকারী যায়গায় সমিল ও অটোরিক্সা চার্জের কারখানায় প্রকাশ্যে চলছে বিদ্যূৎ বানিজ্য

আপডেটঃ 1:45 am | November 01, 2016

Ad

স্টাফ রিপোর্টার : ময়মনসিংহ নগরির সানকিপাড়া রেল ক্রসিং এলাকায় সরকারী যায়গায় দখল করে সমিল কারখানা ও অটোরিক্সা চার্জের কারখানায় প্রকাশ্যে চলছে অবৈধ বিদ্যূৎ এর রমরমা বানিজ্য, বৈধ গ্রাহকগন অতি মাত্রার লোডশেডিং যন্ত্রনায় ভোগান্তির চরমে। প্রশাসনের পরিচয়ে সরকারী সম্পদ লুন্ঠনের প্রতিযোগীতায় বিরামহীন প্রতারক চক্র, বিদ্যূৎ খাতে লোকসান সহ প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে সরকারের ভাবমূর্তি। জানাযায়, প্রতি দিনে ও রাতে সানকিপাড়া এলাকার রেল ক্রসিং এলাকার এসব গ্যারেজে শত শত অটোরিক্সা চার্জ দেন চালকেরা। একেকটি অটোরিক্সা চার্জে নেওয়া হচ্ছে ১০০ টাকা। অভিযোগ রয়েছে, বিদ্যুৎ কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করেই চলছে সমিল কারখানা ও অটোরিক্সা চার্জার গ্যারেজের অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ। রিকসার গ্যারেজ মালিকরা অবৈধ সংযোগ দিয়ে এসব রিকসার ব্যাটারী চার্জ দিয়ে থাকে। আবার অনেক ক্ষেত্রে বিদ্যুৎ-এর কর্মচারীদের ম্যানেজ করে বিদ্যুৎ বিল ফাঁকি দেন। ফলে প্রতি মাসে সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব। একজন রিক্সা মালিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, বৈধ রিক্সাগুলো আস্তে আস্তে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আর অবৈধ ব্যাটারি চালিত রিক্সা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে করে সরকার রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। একটি ব্যাটারি চালিত রিক্সার ব্যাটারি চার্জে ৫ ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ হয়। প্রতি রিক্সায় চার্জ হিসেবে খরচ হয় ৮০ টাকা।

ব্রেকিং নিউজঃ