| |

উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ময়মনসিংহে ছট (সূর্য) পূজা অনুষ্ঠিত

আপডেটঃ 2:16 am | November 06, 2016

Ad

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী : উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ময়মনসিংহে শুরু হয় হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব ছট (সূর্য) পূজা। পূজা উপলক্ষে শনিবার (০৫ নভেম্বর) বিকাল ৪ টায় কাচারীঘাট ব্রম্মপুত্র নদের পাড়ে নদ-নদী ও বিভিন্ন পুকুরে ঘাট তৈরি করেন পূজার আয়োজকরা। আটা, গুড় ও তেল দিয়ে তৈরি করা হয়েছে পূজার প্রধান উপকরণ শিল্পকর্মে আঁকা ছাপের পিঠা। বাঙ্গলী হিন্দুদের সাথে তাল মিলিয়ে দুর্গাপূজা ও কালীপূজায় অংশ নিলেও মূলত এটি তাদের মূল সংস্কৃতির পূজা।
ছট (সূর্য) পুজা উপলক্ষে ময়মনসিংহ জেলা শাখার রবিদাস সমিতির আয়োজনে শনিবার (০৫ নভেম্বর) বিকাল ৪ টায় কাচারীঘাট ব্রম্মপুত্র নদের পাড়ে এক আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। ময়মনসিংহ পৌরসভার ব্যবস্থাপনায় রবিদাস সমিতির উদ্যোগে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন রবিদাস সমিতির সহ সভাপতি রিপন রবিদাস।
প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু। বিশেষ অতিথি ছিলেন ময়মনসিংহ পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ মো: আসিফ হোসেন ডন, ময়মনসিংহ মহানগর পুজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক প্রদীপ ভৌমিক, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি এডভোকেট বিকাশ রায়, আরো অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ৭.৮.৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর মোছা: হামিদা পারভীন, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন আরিফ, মহানগর পুজা উদযাপন পরিষদের সদস্য বাপ্পা সাহা, চন্দন কুমার ঘোষ প্রমুখ। সভাটি পরিচালনা করেন জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর সাহা।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, দেশের উন্নয়নের ধারাকে বাধাগ্রস্থ করার জন্য ষড়যন্ত্রকারীরা চেষ্টা করছে। এদের নির্মুল করতে হবে। তা না হলে উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ হবে। শুধু মেয়র হিসাবে নয় যতদিন বেচে থাকব ততদিন হিন্দু ভাইদের বিপদে পাশে আছি থাকব।
প্যানেল মেয়র-১ আসিফ হোসেন ডন বলেন, এদেশটা শুধু মুসলমানের নয় হিন্দুদেরও। এখানে সবার সমান অধিকার। একজন হিন্দু অপরাধীর জন্য সব হিন্দু দায়ী নয়। তাই অন্যদের উপর হামলা করা অন্যায়। আমি এই অন্যায়ের প্রতিবাদ জানাই। সাথে সাথে একথা বলতে চাই, কেউ যদি হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর অন্যায় ভাবে হামলা করে তবে আমি সবার আগে হিন্দুদের পাশে আছি পাশে থাকব।
মহানগর পুজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক প্রদীপ ভৌমিক বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে হিন্দু, মুসলীম, বৌদ্ধ, খৃষ্টান সবাই রক্ত দিয়েছে। লাল সবুজের এই পতাকাটা ছিনিয়ে আনতে অন্য ধর্মের লোকদের পাশাপাশি হিন্দুদেরও রক্ত জড়িয়ে আছে। আমাদের অনেক মা বোনের ইজ্জতহানী হয়েছে তাই এদেশটা আমারও। আমরা এ জন্মভুমি ছেড়ে কোথাও যাবনা। প্রয়োজনে আন্দোলন করব বুকের রক্ত দিব। তবুও আমাদের অধিকার নস্যাৎ হতে দিবনা।
ময়মনসিংহ মহানগরে লক্ষ্যাধিক হিন্দু বসবাস করে। প্রায় ৫০ হাজার ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে। যে সমস্থ জনপ্রতিনিধি বা ব্যাক্তি আমাদের বিপদের দিনে পাশে থাকবেনা আমরা তাদের প্রত্যাখান করব।
মহানগর ছাত্রলীগের আব্দুল্লাহ আল মামুন আরিফ বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাস করি। শেখ হাসিনার নির্দেশে চলি। তাই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কর্মীরা হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর কোন আঘাত আসলে সর্বশক্তি দিয়ে তা প্রতিহত করবে।
এসময় আরো বক্তব্য রাখেন জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি এডভোকেট বিকাশ রায়, ৭.৮.৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর মোছা: হামিদা পারভীন। আলোচনা শেষে মেয়র টিটু আগত পুজারীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন ও শুভেচ্ছা জানান।

ব্রেকিং নিউজঃ