| |

জনগনের প্রত্যক্ষ ভোটে আগামীতে জেলা পরিষদ প্রশাসক নির্বাচিত করার ব্যাবস্থা করেছেন প্রধান মন্ত্রী

আপডেটঃ 12:44 am | November 09, 2016

Ad

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী : ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকার সাথে মুক্তাগাছা পৌরসভার কাউন্সিলরদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।
মঙ্গলবার (০৮ নভেম্বর) দুপুরে  জেলা পরিষদ শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলনায়তনে মুক্তাগাছা পৌরসভার কাউন্সিলর বুলবুলি আক্তার, মো: আমজাদ হোসেন হেমা রনী দাস, মো: আমজাদ হোসেন মো: মুঞ্জুরুল হক, মো: ছালাম তালুকদার জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা সাথে মতবিনিময় করেন।
মতবিনিময় সভায় জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও মহানগর পুজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক প্রদীপ ভৌমিক এর পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক আহম্মদ আলী আকন্দ, তরুন আওয়ামীলীগ নেতা হুমায়ুন কবির হিমেল, জেলা যুবলীগের তথ্য ও গভেষনা সম্পাদক আখেরুল ইমাম সোহাগ, যুবলীগ নেতা  শরাফ উদ্দিন বাইজিদ প্রমুখ।
ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা বলেন, ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের উন্নয়নে ছোয়া এসেছে। হরিজনপল্লী, বীন ও গোয়ালা সম্প্রদায়, রবি দাষ ও মারোয়ারীর ছেলে-মেয়েরা এখন স্কুলে আসছে। যা আজ থেকে কয়েক বছর আগে ভাবাও যেত না। অবহেলিত ও পিছিয়ে থাকা সমাজের ছেলে-মেয়েরা যাতে কোনো ধরনের বৈষম্যের শিকার না হয় সে দিকে জেলা পরিষদের নজর রয়েছে।
জহিরুল হক খোকা আরও বলেন, আমি কাওকে সংখ্যা লঘু বলিনা সবাই বাংলাদেশের নাগরিক “বাঙ্গালী”। সবার সমান অধিকার আছে বঙ্গবন্ধুর এ সোনার বাংলাদেশে। তিনি বলেন, বীন ও গোয়ালা সম্প্রদায়ের বাসস্থানের নিশ্চয়তা বিধান করে যাতে জমি অধিগ্রহন করা হয় তার জন্য আমি প্রশাসনের সাথে কথা বলব। তিনি আরও বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা যাতে দেশের উন্নয়নের প্রত্যক্ষ ভাবে অংশ গ্রহন করতে পারে তার জন্য তিনি জেলা পরিষদ প্রশাসক নির্বাচিত করেছেন এবং আপনাদের প্রত্যক্ষ ভোটে আগামীতে জেলা পরিষদ প্রশাসক নির্বাচিত করা ব্যাবস্থা করেছেন।
জহিরুল হক খোকা আরও বলেন, আমি জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসাবে মসজিদ, মন্দির, ব্রীজ, কালভার্ট, রাস্তা, কবরস্থান, শ্বশানের উন্নতির জন্য সারা জেলাব্যাপী কাজ করার চেষ্ঠা করেছি। আপনারা মুল্যায়ক করবেন আমি কতটুকু কাজ করতে পেরেছি। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে আগামী জেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন দেন এবং আপনারা যদি আমাকে নির্বাচিত করেন তবে অতীতের মত জেলার উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাব। তিনি বলেন, এক শ্রেনীর লোক জননেত্রী শেখ হাসিনার ভাব মুর্তি ক্ষুন্য করার জন্য চেষ্ঠা করছে আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে তাদের প্রতিহত করি।

ব্রেকিং নিউজঃ