| |

অবহেলিত ও পিছিয়ে থাকা মানুষ যাতে কোনো ধরনের বৈষম্যের শিকার না হয় সে দিকে জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে গেছি

আপডেটঃ 5:31 pm | November 09, 2016

Ad

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী, : মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী : ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকার সাথে মুক্তাগাছা উপজেলার দুল্লা ইউনিয়ন চেয়ারম্যাদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।
বুধবার (০৯ নভেম্বর) দুপুরে জেলা পরিষদ শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলনায়তনে মুক্তাগাছা ১নং দুল্লা ইউনিয়নের চেয়াম্যান হোসেন আলী, ৭ নং ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, ৮নং ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কছিম উদ্দিন, ৯নং ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ইব্রাহীম, ৭-৮-৯ নং ইউনয়ন চেয়ারম্যান কমলা ¤্রং, ৫নং মনোয়ারা খাতুন, ৪ নং শরাফত আলী, ৬নং মগবুল হোসেন, ৪-৫-৬ নং নাসিমা খাতুন, ২ নং হালিম, ৩ নং মালেক খন্দকার, ১নং ফরহান আলী, ১-২-৩ নং জহুরা খাতুন জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকার সাথে মতবিনিময় করেন।
মতবিনিময় সভায় জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক আহম্মদ আলী আকন্দ, আওয়ামীলীগ নেতা এড. ফরিদ আহম্মেদ, কাজী আজাদ জাহান শামীম, তরুন আওয়ামীলীগ নেতা হুমায়ুন কবির হিমেল, জেলা যুবলীগের তথ্য ও গভেষনা সম্পাদক আখেরুল ইমাম সোহাগ, যুবলীগ নেতা  শরাফ উদ্দিন বাইজিদ, ত্রিশাল উপজেলার ১১ নং মুখ্য পুর ইউনিয়নের চেয়াম্যান আবুল কালাম,ফখরুদ্দিন মাস্টার, ফজলুল বারী, আব্দুল মালেক ফকিরর, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
মতবিনিময় সভায় ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা বলেন, আমি জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসাবে মসজিদ, মন্দির, ব্রীজ, কালভার্ট, রাস্তা, কবরস্থান, শ্বশানের উন্নতির জন্য সারা জেলাব্যাপী কাজ করার চেষ্ঠা করেছি।
জহিরুল হক আরও বলেন, অবহেলিত ও পিছিয়ে থাকা সমাজের মানুষ যাতে কোনো ধরনের বৈষম্যের শিকার না হয় সে দিকে জেলা পরিষদের প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে গেছি। আপনাদের ভোট দিয়ে মুল্যায়ন করবেন আমি কতটুকু কাজ করতে পেরেছি।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে আগামী জেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন দেন এবং আপনারা যদি আমাকে নির্বাচিত করেন তাহলে অতীতের মত জেলার উন্নয়নের জন্য আবারও কাজ করে যাব।

ব্রেকিং নিউজঃ