| |

কাধে কাধ মিলিয়ে ময়মনসিংহ জেলা‘কে আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তোলার আহবান ১৪ দল নেতা কর্মীদের : এড. জহিরুল হক

আপডেটঃ 12:59 am | November 10, 2016

Ad

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী : ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা বলেছেন, বর্তমান সরকারের সময়ে দেশের সকল জেলাতে দৃশ্যমান উন্নতি ঘটেছে। ময়মনসিংহ জেলাতেও হচ্ছে। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা, চিকিৎসা ব্যবস্থা, কৃষিসহ বেশ কিছু বিভাগে আমূল পরিবর্তন ঘটেছে। সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে কর্মরত কর্মকর্তাদের মাঝে মানুষকে তার প্রাপ্য সেবা দেয়ার মানসিকতা তৈরি হচ্ছে।
বুধবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় জাসদ অফিসে ময়মনসিংহ জেলা জাসদের উদ্যোগে ১৪ দলের মতবিনিময় সভ প্রধান অতিথির বক্তব্যে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা এসব কথা বলেন।   জহিরুল হক বলেন, হরতাল অবরোধের নামে পেট্রোল বোমা মেরে যেভাবে তারা মানুষ হত্যা করছে এটা কোনো গনতান্ত্রিক সংগঠনের কাজ নয় এটা আল কায়দা জঙ্গীদের কাজ। এসব বোমাবাজদের বিরুদ্ধে ১৪ দলের সবাইকে এক সাথে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।
জহিরুল হক আরও বলেন, ‘৭১-এর পরাজিত শক্তি পাকিস্তানিদের এদেশীয় দোসর রাজাকার, আল-বদল আল শামস বাহিনীর প্রধান বা হোতারাই জঙ্গী সংগঠন গুলোর নেপথ্য নায়ক-এই বিষয়টি পরিষ্কার। যারা অসাম্প্রাদায়িক, গণতান্ত্রিক, স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশকে মেনে নেয়নি, মানতে পারেনি ‘৭২-এর সংবিধানকে, এবং যাদের পৃষ্ঠপোষক দেশগুলো ৭৫-এর ১৫ আগস্টের পর এদেশকে স্বীকৃতি দিয়েছে এই গুরু বিদেশী রাষ্ট্র ও শিষ্য দেশীয় হোতারাই ষড়যন্ত্র ও পরিকল্পনা করে ইসলামের নাম ব্যাবহার করে জঙ্গীবাদী কায়দায় দেশের ক্ষমতায় আরোহন। মূলত বিএনপি – জামাত জঙ্গীবাদের চারা রোপন করে।
সবশেষে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা বলেন, আপনারা আমাদের সরকারের একটা অংশ ১৪ দলের লোক। তিনি ১৪ দলের নেতা কর্মীদের এক সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে ময়মনসিংহকে একটি আধুনিক ও সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সকলের সহযোগিতা চান। এবং ১৪ দলের আগামী যে কোন জাতীয় প্রগ্রামে একসাথে অংশ গ্রহন করার আহবান জানান। ময়মনসিংহ জেলা জাসদের সভাপতি এডভোকেট গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও জেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট আলহাজ্ব সাদিক হোসেন এর সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন সাধারন সম্পাদক এডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক আহম্মদ আলী আকন্দ, বাবু রতন সরকার, জেলা জাসদের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব এডভোকেট নজরুল ইসলাম চুন্নু, জাসদ নেতা এডভোকেট শিব্বীর আহমেদ লিটন, মহানগর জাসদের সভাপতি সৈয়দ শফিকুল ইসলাম মিন্টু, ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি তপন সাহা, সদস্য নিজামুল ইসলাম খান, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি এড. এবিএম নুরুজ্জামান খোকন,  জেলা ন্যাপের সহ সভাপতি সিরাজুল হক, মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী ও ভালুকা উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মনিরা সুলতানা মনি।
এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক উত্তম চক্রবর্তী রকেট, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক মুফাখখারুল ইসলাম খোকন, তরুন আওয়ামীলীগ নেতা হুমায়ুন কবির হিমেল, জেলা যুবলীগের তথ্য ও গভেষনা সম্পাদক আখেরুল ইমাম সোহাগ, যুবলীগ নেতা  শরাফ উদ্দিন বাইজিদ, সৈয়দ নাছিম, ফজলুল হক উজ্জল, মোস্তফা মামুনুররায়হান আশিম, ছাত্রলীগ নেতা মাহাবুব াালম মামুন, তানভির জোবায়ের ইসলাম তারিন প্রমুখ।

ব্রেকিং নিউজঃ