| |

যদি নির্বাচিত হতে পারি সততা ও নিষ্ঠার সহিত ময়মনসিংহ জেলার উন্নয়নের জন্য কাজ করব অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান

আপডেটঃ 1:48 pm | December 05, 2016

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হিসাবে ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচনে প্রতিদন্ধীতা করছেন ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি, ডাকসুর সাবেক সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম নেতা অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান। দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ পত্রিকা অফিসে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন সাবেক জেলা যুবলীগের সভাপতি, উনার এক সময়ের ঘনিষ্ট রাজনৈতিক সহকর্মী, দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ পত্রিকার সম্পাদক প্রদীপ ভৌমিকের সাথে। এসময় আলাপচারিতায় তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সমর্থীত প্রার্থী হিসাবে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হিসাবে তিনি ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচনে প্রতিদন্ধিতা করছেন। নির্বাচনে যদি নির্বাচিত হতে পারেন তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের তথা ময়মনসিংহ জেলার উন্নয়নের জন্য যে সমস্থ পরিকল্পনা গ্রহন করবেন এবং জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের উপর যে দায়িত্বগুলি অর্পন করবেন তিনি সততা ও নিষ্ঠার সহিত অর্পিত দায়িত্ব শতভাগ বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যাবেন। এসময় তিনি বলেন, আমি জেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক ছিলাম, ছাত্রলীগ করেছি, ডাকসুর সদস্য ছিলাম, সাধারন নেতাকর্মীদের ও মানুষের সুখ দু:খ আমি অনুভব করতে পারি। আমি নিশ্চয়তা দিচ্ছি, তৃনমুলের ত্যাগী নেতাকর্মীরা আমার উপর আস্থা রাখতে পারেন। আল্লাহর রহমতে যদি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাই তবে অবশ্যই তাদের সর্বোচ্চ মুল্যায়ন করব। ময়মনসিংহ জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের কোন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান অথবা মেম্বাররা আমার কাছে আসেন তাদের সমস্যাগুলো গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করে সমাধান করার চেষ্ঠা করব। তিনি আরো বলেন, পৌরসভা গুলোকে আধুনিক পৌরসভা হিসাবে গড়ে তোলার জন্য সর্বাত্বক প্রচেষ্ঠা চালাব। অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান বলেন, একজন জনপ্রতিনিধির কাছে দলমত নির্বিশেষে সবাই সমান। ময়মনসিংহ জেলার যে কোন রাজনৈতিক দল ও যে কোন ধর্মের নাগরিকের প্রতি তিনি সমান আচরন করবেন বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন। ময়মনসিংহ জেলার উন্নয়নের জন্য সবাইকে সাথে নিয়ে তিনি ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করে যাবেন। নির্বাচনে প্রতিদন্ধীদের ব্যাপারে মন্তব্য করতে বললে তিনি বলেন, ভোটাররা যদি ভোট দিয়ে তাদের মধ্যে কাউকে জয়ী করেন তবে গনতন্ত্রের স্বার্থে তিনি পরাজয় হাসি মুখে মেনে নিবেন। সাথে সাথে তিনি এ আশাও পোষন করেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন, জননেত্রীর সমর্থিত প্রার্থী হিসাবে দেশের উন্নয়নের জন্য ভোটাররা তাকে ভোট দিবেন এবং তিনি চেয়ারম্যান হিসাবে শতভাগ জয়ী হওয়ার আশা পোষন করেন। তিনি বলেন, যদি চেয়ারম্যান হিসাবে জয়ী হতে পারি তা হলে সততা ও নিষ্ঠার সহিত কাজ করবো। কোন প্রকার দুর্নীতির আশ্রয় নিব না। তিনি সবাইকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে তাকে সমর্থন ও দোয়া করার জন্য আহবান জানান। তিনি জোর দিয়ে বলেন, যদি নির্বাচিত হতে পারি সততা ও নিষ্ঠার সহিত ময়মনসিংহ জেলার উন্নয়নের জন্য কাজ করব।

ব্রেকিং নিউজঃ