| |

খালেদা জিয়া স্বাধীনতা বিশ্বাস করলে পাকিস্তানের পক্ষে অস্ত্র ধরা জামায়াতে ইসলামী নিয়ে জোট করতেন না সৈয়দ আশরাফুল

আপডেটঃ 3:27 pm | December 17, 2016

Ad

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী ময়মনসিংহ :
মুক্তিযোদ্ধা বিরোধীরা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো খালেদা জিয়ার মাধ্যমে। খালেদা জিয়া স্বাধীনতা বিশ্বাস করলে তাদেরকে পাকিস্তানের পক্ষে অস্ত্র ধরা জামায়াতে ইসলামী নিয়ে জোট করতেন না বলে মন্তব্য করেছেন জনপ্রশাসন মন্ত্রী ও আ’লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।
মন্ত্রী বলেন, যারা যুদ্ধ করে পরাজিত হয়েছে সেই নিয়াজি, নিজামী তাদের গাড়িতে এই খালেদা জিয়া বাংলাদেশের মানচিত্র তুলে দিয়েছেন। আমরা যুদ্ধ করেছি এই রাজাকার-আলবদরদের বাংলার মাটিতে স্থান দেওয়ার জন্য নয়।
মন্ত্রী আরও বলেন, স্বাধীনতাবিরোধীরা খালেদার মাধ্যমে যেভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, তার দৃষ্টান্ত পৃথিবীর কোন দেশে নেই। একাত্তরের খুনি বাহিনী আলবদরের দুই শীর্ষ নেতা নিজামী ও মুজাহিদকে ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে তার জোটসঙ্গী জামায়াতের এ দুই নেতাকে মন্ত্রী করেছিলেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খমতায় আশার পার বুদ্ধিজীবী হত্যার রায়ে এ দুই নেতার ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের গাড়িতে বাংলাদেশের জাতিয় পতাকা তুলে দেয়ায় খালেদা জিয়াকে মূল্য দিতে হবে।
সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ বীরের দেশ। এই বীররা দেশটাকে স্বাধীন করেছেন বিষয়টির উল্লেখ করে তিনি বলেন, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ সবক্ষেত্রেই এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে।
মহান বিজয় দিবস ও ১০ ডিসেম্ভর ময়মনসিংহ মুক্ত দিবস উপলক্ষে শুক্রবার (১৬ ডিসেম্বর) রাতে ময়মনসিংহ নগরীর ছোটবাজারস্থ মুক্তমঞ্চে আয়োজিত আলোচনা সভায় জনপ্রশাসন মন্ত্রী ও আ’লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এ মন্তব্য করেন।
এ সময় ধর্মমন্ত্রী প্রিন্সিপাল মতিউর রহমান, ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনের সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন, ময়মনসিংহ-২ (ফুলপুর-তারাকান্দা) আসনের সংসদ সদস্য শরীফ আহমেদ, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) হেলাল মোর্শেদ, বিভাগীয় কমিশনার জিএম সালেহ উদ্দিন, পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জ’র ডিআইজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন, ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ইকরামুল হক টিটু, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব এহতেশামুল আলম, জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, মহানগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত, যুবলীগের সাধারন সম্পাদক এমএ কুদ্দুস, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহরিয়ার মো: রাহাত খান, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রকিবুল ইসলাম রকিব, সাধারন সম্পাদক সরকার মো: সব্যসাচী, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন আরিফ, সাধারন সম্পাদক ফয়জুর রাজ্জাক উষানসহ জেলা আ’লীগ ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ব্রেকিং নিউজঃ