| |

রোহিঙ্গা নিয়ে নড়েচড়ে বসছে বাংলাদেশ-মিয়ানমার

আপডেটঃ 2:25 am | December 30, 2016

Ad

স্টাফ রিপোর্টার : রোহিঙ্গা ইস্যুতে অবশেষে নড়চড়ে বসেছে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার। ঢাকায় নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে নিয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সাফ জানিয়ে দিয়েছে, সেদেশ থেকে পালিয়ে আসা নাগরিকদের অবশ্যই ফিরিয়ে নিতে হবে।

জবাবে মিয়ানমার রাষ্ট্রদূত মিয়া মিন্ট থান জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা বিষয়ে কথা বলতে শিগগিরই বাংলাদেশে আসছেন মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দলের নেত্রী অং সান সু চির বিশেষ দূত।

নিরাপত্তা বাহিনীর দমন-পীড়ন আর উগ্র বৌদ্ধদের হামলার ঘটনায় অনেক দিন ধরে কয়েক লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে শরণার্থী হিসেবে বসবাস করছে। সাম্প্রতিক নির্যাতনের ঘটনায় আরো অন্তত ৫০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

এ নিয়ে বাংলাদেশের মানুষ বারবার উদ্বেগ জানিয়ে সরকারকে পদক্ষেপ নেয়ার জন্য দাবি জানিয়ে আসছে। এ ছাড়া গত মঙ্গলবার সেন্টমার্টিন দ্বীপের কাছে বাংলাদেশ সমুদ্রসীমায় বাংলাদেশি জেলেদের মাছ ধরার ট্রলারে আক্রমণ চালিয়ে চার জেলেকে আহত করে মিয়ানমারের নৌবাহিনী। গুলিতে গুরুতর আহত জেলেদের মিয়ানমারের একটি নৌঘাটিতে নিয়ে যায় তারা।

এসব ঘটনায় বৃহস্পতিবার মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত মিয়া মিন্ট থানকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডেকে নেয়া হয়।

রোহিঙ্গদের অনুপ্রবেশের বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে  দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কবিষয়ক সচিব কামরুল আহসান মিয়ানমার রাষ্ট্রদূতকে জানান, সাম্প্রতিক ঘটনায় প্রায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।  বাংলাদেশে বসবাসরত সব রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নিতে দ্রুততম সময়ে আলোচনায় বসার জন্য মিয়ানমারের প্রতি তাগিদ দেন তিনি।
মিয়ানমারের নাগরিক রোহিঙ্গারা যাতে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে বাধ্য না হয় সে জন্য সমস্যার মূল কারণ খুঁজে বের করতে সে দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানান কামরুল আহসান।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের হত্যা-ধর্ষণ-নির্যাতন বন্ধে কোনো ভূমিকা না রাখায় আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলো অং সান সু চির কড়া সমালোচনা করছে। বাংলাদেশিসহ অনেকে সু চির শান্তিতে নোবেল পুরস্কার ফিরিয়ে নেয়ার জন্য নোবেল কমিটির প্রতি দাবি জানায়।

এদিকে পররাষ্ট্রসচিব শহীদুল হকের বরাত দিয়ে বিবিসির খবরে বলা হয়, মন্ত্রণালয়ে ডেকে নেয়া মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে আসা  রোহিঙ্গা শরণার্থীদের অবস্থা মূল্যায়নের জন্য অং সান সূ চির বিশেষ দূত শিগগির বাংলাদেশ সফরে আসবেন।

শহীদুল হক বিবিসিকে বলেন, ‘উনি (রাষ্ট্রদূত) আমাদের বলেছেন ওনাদের একজন স্পেশাল এনভয় আসবেন। ওনারা শিগগির আমাদের জানাবেন কবে আসবেন।’ এ ছাড়া গত মঙ্গলবার বাংলাদেশি জেলেদের  নৌকায় মিয়ানমারের বাহিনীর গুলি করার ঘটনায় একটি প্রতিবাদপত্র রাষ্ট্রদূতের কাছে হস্তান্তর করা হয় বলে জানান সচিব।

ব্রেকিং নিউজঃ