| |

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ‘মেধাহীন গরু’ বলায় নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় বিক্ষোভে উত্তাল

আপডেটঃ 8:36 am | February 02, 2017

Ad

ফয়জুর রহমান ফরহাদ ॥ ময়মনসিংহের ত্রিশালে অবস্থিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহীত উল আলমের ডান হাত এবং বিএনপি জামায়াতের সমর্থক হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত সহকারী রেজিস্ট্রার খন্দকার এহসান হাবীব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ‘মেধাহীন গরু’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি তার ফেসবুক ওয়ালে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে এ ধরনের মন্তব্য করায় তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও উপস্থিত শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে ক্যাম্পাস। তাকে অপসারণের দাবিতে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা। জানা যায়, গত বৃহস্পতি ও শুক্রবার নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পদে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেকে নিয়োগ পাওয়ায় ফেসবুকে বিভিন্নজন এটা নিয়ে প্রশ্ন তুলেন। এরই প্রতিউত্তরে সহকারী রেজিস্ট্রার খন্দকার এহসান তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেন, ‘বিষয়টা প্রাইভেট না। বিষয়টি হলো মেধার, যোগ্যতার। আপনি পাবলিকের গরু নিবেন নাকি প্রাইভেটের মেধা নিবেন’। অন্য এক পোস্টে লিখেন, ‘পাবলিকের অনেক গরু প্রতিদিন আমার বাড়ির মাঠে ঘাস খেতে দেখেছি’। এ পোস্টগুলোর পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিন্দার ঝড় উঠে। এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাকে বহিষ্কারের দাবিতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সোহান খান তার ওয়ালে লিখেন, বিএনপি-জামাতের রিক্রুটমেন্ট পাওয়া সহকারী রেজিস্ট্রার সাহস পায় কিভাবে বিশ্ববিদ্যালয়কে অবমাননা করার? নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সর্বশেষ নিয়োগে সেকশন অফিসার পদে নিয়োগ প্রত্যাশী জাকিবুল হাসান রনি ও ইব্রাহিম খলিল শান্ত তার ওয়ালে এহসানকে কবি সাহিত্যিক আখ্যায়িত করে বলেন, এটা নিয়ে বিএনপিপন্থীরা ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সহকারী রেজিস্ট্রার খন্দকার এহসান হাবীব জানান, আমি বিশ্ববিদ্যালয় বা ছাত্রদের উদ্দেশ্য করে কোনো পোস্ট দেয়নি। এদিকে কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহীত উল আলম এর ছেলে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করলেও তাকে জাতীয় কবি কাজী নজরুর ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগে প্রভাষক হিসেবে নিয়োগ প্রদানের পায়তারা চলছে। আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি সম্ভাব্য সিন্ডিকেটের সভায় উপাচার্যের পুত্রকে নিয়োগ দেয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে। উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১২ই অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রীর ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল উদ্বোধন নিয়েও বিতর্কিত পোস্ট দেন এহসান হাবীব। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় পেজ, সাধারন শিক্ষার্থী, শিক্ষক ফেসবুক ব্যবহার কারীরা বিভিন্ন মন্তব্যে ফেসবুকে ঝড় তুলে। গতকাল দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে লাঠিশোঠা নিয়ে মিছিল বের এহসানের বহিস্কারের দাবী জানায়। এহসানকে বহিস্কার না করা পর্যন্ত লাগাতার আন্দোলনের হুমকি দেন শিক্ষার্থীরা।

ব্রেকিং নিউজঃ