| |

বাহাদুরাবাদ রেল ফেরি ঘাট : ফেরিতেই ট্রেন পারাপার

মে ২১, ২০২০

ফেরিতেই ট্রেন পারাপার এমনই ফেরির ইতিহাসের সাক্ষী রয়েছে এ দেশে। যা ১৫০ বছরের স্মৃতি বয়ে বেড়াচ্ছে। ১৯৩৮ সালে এই রেলওয়ে ফেরি চালু হয়। যার নাম দেওয়া হয় ‘বাহাদুরাবাদ রেল ফেরি ঘাট’। রেলে ফেরি পারাপার এটাও সম্ভব! কৌতূহল আর জনমুখে ছড়িয়ে পড়ল মুহূর্তে বাহাদুরাবাদ খ্যাতি অর্জন করল। আলোচিত ও ঐতিহ্যবাহী বাহাদুরাবাদ ইউনিয়নের নাম ছড়িয়ে পড়ল দেশে ও বিদেশে। জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে রয়েছে এই ঘাট। বলা যায়, বাংলাদেশের সবচেয়ে পরিচিত এলাকাগুলোর মধ্যে অন্যতম হল বাহাদুরাবাদ। কেন এমন নাম তার ইতিহাসও রয়েছে। আসলে ১৮৫৭ সালে সিপাহি বিদ্রোহের সময় বিদ্রোহীর প্রতি সমর্থন জানিয়ে শেষ বিদ্রোহী নেতা সম্রাট বাহাদুর শাহ জাফরের নামানুসারে এই এলাকার নামকরণ করা হয় বাহাদুরাবাদ। শুধুমাত্র দেশেই নয়, একসময় এর পরিচিতি ছিল বিশ্বজুড়েই। বাহাদুরাবাদের বিশ্বখ্যাতি এনে দিয়েছিল একমাত্র...

জনাব কিছু ফেলে গেলেন কি?

মে ১৪, ২০২০

আনোয়ার মাষ্টার সেদিন অনেক আগের কথা। শরৎ এর কোনো এক ভোরবেলা। বিদ্যালয়ের কাজে ঢাকা বোর্ডে যাওয়ার জন্য বাসের অপেক্ষায় ছিলাম। হঠাৎ করে ত্রিশাল ব্রিজের সামনে একটি বাস এসে দাঁড়ালো। আমিও সুযোগটি হাতছাড়া করলাম না। তাৎক্ষণিক বাসে উঠে পড়লাম। কিন্তু বাসে উঠে ইতস্ততার মধ্যে পড়ে গেলাম। কারণ একটি মাত্র সিট খালি আছে যা ড্রাইভারের পেছনের সারিতে বামদিকে। ডান দিকে জানালার পাশে একজন ভদ্রমহিলা জানালার দিকে মুখ করে তাকিয়ে বসে আছেন।আমি অবশ্য কিছু না বলে আসনটিতে বসে পড়লাম বটে কিন্তু মনে মনে একটু অস্বস্তি বোধ করতেছিলাম। বাস দ্রুত গতিতে ঢাকার দিকে এগিয়ে চলছে। তখনকার সময় নিরাপদ ট্রাভেলসই ছিল সবচেয়ে দ্রুততম বাস। আমি আমার ব্যাগ থেকে এক খানা গল্পের বই বের করে পাতা উল্টোচ্ছিলাম। কি করব.? দুর্ভাগ্য আমার বাসে একজন মানুষও আমার পরিচিত ছিল না যে তার সাথে কথা বলে সময় কাটাব।তাছাড়া...

ব্রেকিং নিউজঃ