| |

গাড়ির চালক রাষ্ট্রপতিপুত্র এমপি, সেই গাড়ির যাত্রী রাষ্ট্রপতি!

আপডেটঃ 1:32 pm | March 16, 2017

Ad

হাওর অবহেলিত একটি জনপদ। কিন্তু বর্তমানে হাওরের তিন উপজেলায় (অষ্টগ্রাম-ইটনা-মিঠামইন) সাবমার্সেবল রোড নির্মাণ এবং অলওয়েদার রোডের নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ায় হাওর অনেকটা শহরে রূপান্তর হচ্ছে।

বর্তমানে এ তিন উপজেলার সাবমার্সেবল রোড দিয়ে অটোরিকশা, রিকশা ও মোটরসাইকেল চলাচল করে।

সাবমার্সেবল রোড নির্মাণের আগে হাওরের এ তিন উপজেলায় অটোরিকশা ও মোটরসাইকেল দেখা যেত না।

বর্তমান বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ কিশোরগঞ্জের হাওরের (অষ্টগ্রাম-ইটনা-মিঠামইন) তিন উপজেলায় ৪ দিনের সরকারি সফরে এসে মিঠামইন-ইটনা উপজেলায় রিকশা ও অষ্টগ্রামে অটোরিকশায় চড়েছেন।

কিন্তু রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের স্বপ্ন ছিল বঙ্গভবন থেকে সরাসরি গাড়ি বহর নিয়ে হাওরের তিন উপজেলায় আসা।

রাষ্ট্রপতির সেই স্বপ্ন কিছুটা পূরণ হলো হাওরের অষ্টগ্রাম উপজেলায় প্রথমবারের মতো প্রাইভেটকারে চড়ে ৪ কিলোমিটার রাস্তা ঘুরে।

এ সময় রাষ্ট্রপতির প্রাইভেটকারের চালক ছিলেন তার বড় ছেলে ও কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এমপি।

বুধবার (১৫ মার্চ) দুপুর পৌনে ১টার দিকে তিনি অষ্টগ্রাম জেলা পরিষদ ডাক বাংলো থেকে প্রাইভেটকারে চড়ে কাস্তুল ইউনিয়নের পাশ দিয়ে নির্মিত অলওয়েদার সড়কের নির্মাণ কাজ ও অষ্টগ্রাম থেকে বাজিতপুরের সাবমার্সেবল সড়কের একটি সেতু পরিদর্শন করেন।

এছাড়া রাষ্ট্রপতি সড়ক পরিদর্শন শেষে ডাক বাংলোয় ফেরার পথে অষ্টগ্রাম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন।

পরে দুপুর আড়াইটায় তিনি অষ্টগ্রামের জেলা পরিষদ ডাক বাংলোয় বিশ্রাম শেষে বিকেল ৩টা ৫ মিনিটে হেলিকপ্টারে করে বঙ্গভবনের উদ্দেশে রওনা হন।

অন্যদিকে বঙ্গভবনের মুখপাত্র জয়নাল আবেদিন জানান, সাধারণত রাষ্ট্রপতির গাড়ি বহরে জিপ থাকে না।

কিন্তু একটি স্থানীয় হাসপাতালের ব্যবহারের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় সম্প্রতি আনা হয় এই জিপটি।

যাতে এবারই প্রথম রাষ্ট্রপতি চড়ে এই এ অঞ্চলের অমসৃণ পথে ভ্রমণ করলেন। জয়নাল আবেদিন আরোও বলেন, রাষ্ট্রপতি বেলা ১টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত আশপাশের এলাকা ঘুরেন।

এ সময় গ্রামবাসী এই মাটির সন্তানকে ব্যাপকভাবে অভিনন্দিত করে। রাষ্ট্রপতি তাদের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাদের খোঁজখবর নেন।

অলওয়েদার সড়ক পরির্দশনের সময় রাষ্ট্রপতি সড়ক নির্মাণে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঠিকভাবে ও দ্রুত সময়ে কাজ শেষ করার নির্দেশ দেন।

এবার রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ মিঠামইন-ইটনা-অষ্টগ্রাম উপজেলায় ৪ দিনের সরকারি সফরে এসে খুব ব্যস্ততম দিন কাটিয়েছেন।

প্রথমদিন (১২ মার্চ) রাষ্ট্রপতি মিঠামইন উপজেলায় মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত তমিজা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তৃতীয় তলা ভবন উদ্বোধন করেন।

পরে রিকশায় চড়ে বাজার ও বাজারের বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করেন। ওদিন বিকেল সাড়ে ৪টায় রাষ্ট্রপতি মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হক ডিগ্রি কলেজ মাঠে সুধী সমাবেশে যোগদান করেন এবং সন্ধ্যায় ওই কলেজের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করে মিঠামইনের কামালপুর গ্রামে নিজ বাড়িতে রাত্রিযাপন করেন।

২য় দিন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সোমবার (১৩ মার্চ) দুপুর সোয়া ১টার দিকে মিঠামইন থেকে হেলিকপ্টারে করে ইটনা উপজেলায় যান।

বিকেল সাড়ে ৩টায় ইটনা মহেশচন্দ্র বিদ্যানিকেতন পরিদর্শন করেন এবং ‘রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ কলেজ’ এর ২০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বক্তব্য রাখেন।

সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় রাষ্ট্রপতি জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে স্থানীয় ব্যক্তিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

৩য় দিন মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) দুপুর ১২টায় রাষ্ট্রপতি ইটনা থেকে হেলিকপ্টারে করে অষ্টগ্রাম উপজেলায় গিয়ে পৌনে ২টায় ‘অষ্টগ্রাম রোটারি ডিগ্রি কলেজ’ এর ২৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

বিকেলে অষ্টগ্রাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সুধী সমাবেশে যোগদান করেন এবং সন্ধ্যায় রাষ্ট্রপতি জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে স্থানীয় ব্যক্তিদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

৪র্থ দিন বুধবার (১৫ মার্চ) দুপুর পৌনে ১টার দিকে অষ্টগ্রামের বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ পরির্দশন করে বিকেল ৩টার দিকে হেলিকপ্টারে করে বঙ্গভবনের উদ্দেশে রওনা করেন।

 

ব্রেকিং নিউজঃ