| |

মসজিদুত তাক্বওয়া ও মা‘আরিফুল কুরআন নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসার বহুতল ভবন মসজিদ উদ্বোধন করলেন ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান

আপডেটঃ 9:48 pm | March 18, 2017

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ ময়মনসিংহ শহরের ৮৬ নং জেসিগুহ রোডস্থ মসজিদুত তাক্বওয়া ও মা‘আরিফুল কুরআন নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসার বহুতল ভবন মসজিদ উদ্বোধন করলেন ধর্মমন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মো: মতিউর রহমান। মসজিদ নির্মানের পর প্রথম জুমার নামাজ আদায় শেষে ১৭ মার্চ তিনি এ মসজিদ উদ্বোধন করেন। মসজিদ উদ্বোধনের পুর্বে ধর্মমন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসাবে মসজিদের উন্নয়ন ও বিশ্ব শান্তির মঙ্গল এবং শান্তি কামনা করে বক্তব্য রাখেন।

মসজিদ উদ্বোধন কালে বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গবন্ধুর শহীদ পরিবার, জাতীয় চার নেতা, মহান মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদ সহ বিশ্বের সকল কবরবাসী মুসলমানের আত্মার শান্তি ও মঙ্গল কামনা করে দোয়া করা হয়।

পাশাপাশি সকল ধর্মের সকল মানুষের সহঅবস্থান সহ মঙ্গল কামনা করা হয়। ধর্মমন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মো: মতিউর রহমান বলেন, মসজিদ মহান আল্লাহতালার ঘর, মাদরাসা মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর ঘর। যারা মহান আল্লাহতালার ঘর ও মহানবী (সা:) এর ঘরের খেদমত করবে মহান আল্লাহতালা তাদের সকল পর্যায়ে সহযোগিতা করবেন।

তিনি ধনি গরীব নির্বিশেষে সকল মুসলমানকে মসজিদ ও মাদরাসার খেদমত করার আহবান জানান। তিনি বলেন, ১৭ মার্চ বাঙ্গালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন। মহান এই নেতার জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতোনা।

তাই বাঙ্গালীতে এই মহান নেতার আত্মার শান্তির জন্য দোয়া ও মাগফিরাত কামনা করতে হবে। এসময় মন্ত্রী উনার প্রয়াত সন্তান ডা: মুশফিকুর রহমান শুভ‘র আত্মার জন্য সকল মুসল্লীর কাছে দোয়া কামনা করেন।

পরে তিনি মসজিদুত তাক্বওয়া ও মা‘আরিফুল কুরআন নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসার বহুতল ভবন এর নির্মান কাজের জন্য ১লাখ টাকার প্রদানের প্রতিশ্র“তি প্রদান করেন এবং পরবর্তীতে মাদরাসা ও পাঠাগারের জন্য অনুদান প্রদান করা হবে বলেও আস্বাস দেন।

গত ১৭ বছর যাবৎ মা‘আরিফুল কুরআন নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসায় পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় হলেও ১৭ মার্চ প্রথম জুমার নামাজ আদায় হয়। মসজিদের প্রথম জুমার নামাজে খুতবা পাঠ করেন পীরে কামেল হযরত মাওলানা মুফতি আহমদ আলী (দা:বা:)।

খুতবা পাঠের পুর্বে বয়ান প্রদান কালে তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে স্বাধীন করে দেশ ও দেশের মানুষকে পরাধীনতার হাত থেকে মুক্ত করেছেন। এ জন্য চিরদিন বাংলাদেশের মানুষ মহান এই নেতাকে দোয়া করবে।

তিনি বলেন, কিছু মানুষ জঙ্গিবাদের সাথে ইসলামকে জড়িয়ে ফেলে। আসলে ইসলামের সাথে জঙ্গিবাদের কোন সম্পর্ক নেই। যারা জঙ্গিবাদ করে তাদের সাথে ইসলামের কোন সম্পর্ক নেই। এরা মানুষের শত্র“ ও ইসলামের শত্র“। এরা মানুষ নামের শয়তান।

মসজিদ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ময়মনসিংহ জেলা আইনজীবি সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব এডভোকেট জালাল উদ্দিন খান, ধর্মমন্ত্রীর এপিএস ও ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক এবিএম আক্তারুজ্জামান রবিন, মসজিদুত তাক্বওয়া ও মা‘আরিফুল কুরআন নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসার সভাপতি আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মো: আব্দুল কাইয়ুম, সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক মো: নাজমুল হুদা মানিক, মসজিদ নির্মান কমিটির আহবায়ক ও রেলওয়ে শ্রমিকলীগের প্রবীন নেতা মো: আকরাম হোসেন,

নির্মান কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী মো: মিনার হোসেন, মসজিদ ও মাদরাসা কমিটির যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মো: কামরুল ইসলাম খোকন, সাবেক সহসভাপতি ও বর্তমান সদস্য মো: আব্দুল হালিম মৃধা, জে সি গুহ রোডের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব মো: বাবুল মড়ল, আওয়ামীলীগ নেতা মো: আলাউদ্দিন, মসজিদুত তাক্বওয়া ও মা‘আরিফুল কুরআন নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসার মুহতামিম হযরত মাওলানা মো: আবু সাইদ,

৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মো: জুলহাস উদ্দিন, মসজিদ ও মাদরাসা কমিটির বর্তমান সদস্য মো: আমীর হোসেন, মো: ফিরোজ আলী, মো: সোলায়মান, মো: আলমগীর, মো: দেলোয়ার হোসেন, মো: জাকির হেসেন, আওয়ামীলীগ নেতা মো: জুবায়ের হোসেন জনি, জে সি গুহ রোডের ব্যবসায়ী মো: আনোয়ার হোসেন, গাজী আহমেদ, মো: ইসমাইল হোসেন মানিক, মো: আ: জলিল সহ এলাকার সর্বস্তরের মুসল্লীগন উপস্থিত ছিলেন।

গত বছর ধর্মমন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মো: মতিউর রহমান এই বহুতল ভবন মসজিদ নির্মান কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। একবছর পর তিনিই মসজিদ উদ্বোধন করেন।

ব্রেকিং নিউজঃ