| |

ঈশ্বরগঞ্জে বাড়িতে হামলা লুটপাট আতংকে দিনকাটছে বাদির পরিবার

আপডেটঃ 7:09 pm | March 19, 2017

Ad

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধি-ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে । গত ১১মার্চ সন্ধ্যায় পৌর এলাকায় ওই হামলা ও লুটপটের ঘটনাটি ঘটে। বিষয়টি নিয়ে ১৩ মার্চ থানায় একটি এজাহার দায়ের করলেও মামলাটি এখনও নথিভুক্ত হয়নি। ঘটনার পর থেকে আতংকে দিনকাটছে বাদির পরিবার।
জানা যায়, উপজেলার পৌরসভাস্থ চরহোসেনপুর গ্রামের সিদ্দিকুর রহমানের সাথে প্রতিবেশী আব্দুল বারেকের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। বিষয়টি নিয়ে সিদ্দিকুর রহমান ঈশ্বরগঞ্জ সহকারী জজ আদালতে ৯জুলাই ২০১৪সনে একটি মামলা দায়ের করে।

পরে আদালত একই সনের ১সেপ্টেম্বর সিদ্দিকুরের পক্ষে রায় দেন। ওই রায়ের প্রেক্ষিতে ২০১৬সনের ২০অক্টোবর আদালত জারিকারকের মাধ্যমে বিরোধপূর্ণ জমিটি সিদ্দিকুর রহমানকে বুািঝয়ে দেন।

আদালতের ওই রায়ের পর থেকে আবদুল বারেকের লোকজন সিদ্দিকুর রহমানকে নানান ভাবে হয়রানি ও ভয়ভিতি দেখিয়ে আসছিলো।

এবং সিদ্দিকুর রহমানের কাছে বিভিন্ন সময় ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসায় ময়মনসিংহের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিলায় ম্যাজিস্ট্রেট এর ৪ নং আমলী আদালতে মামলাও রয়েছে উক্ত বিবাদীগণের বিরুদ্ধে।

এ ছাড়াও বিবাদীদের বিরুদ্ধে মারপিট, হামলা, লাটপাটের ঘটনায় ঈশ্বরগঞ্জ থানায় একটি মামলার চুড়ান্ত প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে। এতা কিছুর পরও গত ১১মার্চ সন্ধ্যায় বারেক গং তাদের লোকজন নিয়ে সিদ্দিকুর রহমানের বাসায় হামলা করে লুটপাট চালায়।

লুটপাটে বাধা দিলে সিদ্দিকুর রহমানকে বেধরক পেটানো হয়। ঘটনাস্থল থেকে এলাকাবাসী সিদ্দিকুর রহমানকে উদ্ধার করে। আসামীদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলায় ওয়ারেন্ট থাকলেও অজ্ঞাত কারণে তারা রয়েছে ধরাছোয়ার বাইরে। হামলার পর থেকে আতংকে দিনকাটছে বলে অভিযোগ করেছে সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে উজ্জ্বল মিয়া।
সিদ্দিকুর রহমান জানান, ঘটনার দিন সন্ধ্যায় বারেকের ছেলে নয়ন তাদের লোকজন নিয়ে বাড়িতে হামলা করে। তাকে বেধরক পেটানো হয়। ঘরে থাকা স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ ৮০হাজার টাকা লুটকরে নিয়ে যায়। ইতোপূর্বে জমি সংক্রান্ত বিরোধে বারেকের লোকজন তাদের উপর কয়েক দফা হামলা চালিয়ে আহত করে। তাদের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলাও রয়েছে। একাধিক মামলায় ওরেন্টভুক্ত আসামীরা আটক না হওয়ায় বার বার তাদের উপর হামলা হচ্ছে। হামলার পর থেকে প্রতিমুহুর্তে আসামীদের আক্রমনে জীবনাশঙ্কায় দিন কাটছে তাদের।
অভিযুক্ত আব্দুল বারেকের বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি বলে বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
ঈশ্বরগঞ্জ থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) বদরুল আলম খান জানান, উভয় পক্ষের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ রয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ