| |

দেশের কেউ গৃহহারা থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী

আপডেটঃ 5:22 pm | March 29, 2017

Ad

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশের কোনো মানুষ গৃহহারা থাকবে না। যাদের ঘর নাই, বাড়ি নাই, জমি নাই তাদের প্রত্যকের জন্য বিনামূলে বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।

বুধবার বিকেল সোয়া ৪টায় ফরিদপুর শহরের সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ মাঠে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের সকল স্কুলে শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বই দেয়া হয়েছে। পৃথিবীর আর কোনো দেশে সব স্কুলে বিনামূল্যে বই দেয়া হয় না। আমরা দিয়েছি।

শেখ হাসিনা বলেন, ’৭৫-এর পর বাংলাদেশে হত্যার রাজনীতি হয়েছে। আন্দোলনের নামে ২০১৩, ২০১৪ ও ২০১৫-তে তারা (বিএনপি-জামায়াত) অত্যাচার করেছে মানুষের ওপর। এই সময়ে তারা ৫০৮ জনকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ফরিদপুর জেলা অবহেলিত। বিএনপি যখনই ক্ষমতায় এসেছে ফরিদপুর অবহেলিত থেকেছে। আমরা আজকে ফরিদপুরের জন্য অনেক উপহার নিয়ে এসেছি। একমাত্র আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলেই দেশে উন্নয়ন হয়। উপহার হিসেবে আপনাদের ২০টি প্রকল্প দিয়ে গেলাম।

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবল চন্দ্র সাহার সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি, বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ এমপি, ডা. দীপু মনি এমপি ও আবদুর রহমান এমপি, বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে দীর্ঘদিন পরে মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের ফরিদপুরের শ্বশুরবাড়িতে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে জোহরের নামাজ, বিশ্রাম ও মধ্যাহ্ন ভোজ সেরে জনসভাস্থলে যান তিনি।

বেলা পৌনে ১টার দিকে পুতুলের শ্বশুর স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সদর উপজেলার বদরপুরের বাড়ি আফসানা মঞ্জিলে পৌঁছান শেখ হাসিনা। এ সময় পুতুল ও তার স্বামী খন্দকার মাশরুর হোসেনসহ শ্বশুর বাড়ির স্বজনরা প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।

ব্রেকিং নিউজঃ