| |

ফুটপাত হকারমুক্ত করার পাশাপাশি হকারদের দ্রুত পুর্নবাসনের ব্যবস্থা করা দরকার

আপডেটঃ 11:06 pm | March 29, 2017

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ প্রাচীন নগরী ময়মনসিংহের পৌরসভা বর্তমানে বিভাগীয় শহর হিসাবে পরিচিত। দেশের অন্যান্য সিটি কর্পোরেশনের মত এটি একটি সিটি কর্পোরেশনের অর্ন্তভুক্ত নগরী। বিভাগীয় মহানগর হিসাবে একে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন নগরী হিসাবে দেখতে চায় প্রশাসন থেকে শুরু করে ময়মনসিংহবাসী।

এই চিন্তাকে আমলে নিয়ে ময়মনসিংহ পৌরসভা ও জেলা প্রশাসন যৌথ উদ্যোগে মহানগরের প্রধানতম রাস্তা গুলির ফুটপাত, কালভার্ট, পুল, ড্রেনের উপর ও পৌরসভার মালিকানাধীন জায়গা গুলোতে অবৈধ স্থাপনা ও অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে মুক্ত করতে অভিযান চালিয়েছে। যার ফলশ্র“তিতে গাঙ্গিনারপাড় সহ কিছু কিছু এলাকা হকারমুক্ত হয়েছে।

এ ধরনের মহতি উদ্যোগকে ময়মনসিংহের সর্বস্তরের জনসাধারন অভিনন্দন জানিয়েছে। তবে পাশাপাশি বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন ও সামাজিক সংগঠন গুলো মনে করে হকারদেরকে উচ্ছেদের সাথে সাথে তাদের কর্মসংস্থানের জন্য পুর্নবাসনের ব্যবস্থা নেয়া জরুরী। ফুটপাতের হকাররা কর্মহীন হয়ে পড়ার ফলে তাদের জীবিকা নির্বাহ কঠিন সমস্যায় নিপতিত হয়েছে।

কোন কোন হকার কাজের অভাবে অর্ধহার অনাহারে দিনাতিপাত করছে। তাদের সন্তানদের শিক্ষার খরচ নিয়ে তারা দুশ্চিন্তায় পরেছে। কেউ কেউ মনে করেন সংসার চালানোই যেখানে অসম্ভব হয়ে পরেছে সেখানে চিকিৎসা সহ শিক্ষার খচর চালানো তাদের পক্ষে দু:স্বাধ্য।

তাই জনসাধারনের সাথে এ ব্যাপারে কথা বলে জানাগেছে, হকার উচ্ছেদের পাশাপাশি হকারদের পুর্নবাসন অত্যন্ত জরুরী। ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ পত্রিকার সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক প্রদীপ ভৌমিক মনে করেন ফুটপাত ও রাস্তা অবশ্যই হকার মুক্ত করতে হবে তবে তাদের পুর্নবাসনের জন্য পৌরসভা ও প্রশাসনকে ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে।

তার মধ্যে নিউ মার্কেট, বাসাবাড়ী মার্কেট, গাঙ্গিনারপাড় হকার মার্কেটকে বহুতল ভবন নির্মান করে হকারদেরকে স্থায়ী ভাবে পুর্নবাসনের জন্য ব্যবস্থা করার কর্মসুচী নেয়া যেতে পারে।

বীরমুক্তিযোদ্ধা ভাষা সৈনিক রফিক উদ্দিন ভুইয়া স্টেডিয়ামের চারিদিকে ঢাকার মীরপুর স্টেডিয়াম ও ঢাকার কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত স্টেডিয়াম মার্কেটের আদলে একটি মার্কেট নির্মান করে তাতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রকৃত হকারদের নামে দোকান বরাদ্ধ করে পুর্নবাসনের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

পাশাপাশি আপাদত হকারদের মালগুদাম চত্বরে পুর্নবাসন করে জীবন জীবিকা নির্বাহ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা যেতে পারে। ময়মনসিংহের বিজ্ঞজনেরা মনে করেন হকারদের একটি বিরাট অংশ বেকার হয়ে পরার ফলে আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি সহ বিভিন্ন সামাজিক বিপর্যয় দেখা দিতে পারে।

এ ব্যাপারে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে আলাপকরে জানাযায়, উনারাও ফুটপাত হকারমুক্ত চান কিন্তু খেটে খাওয়া মানুষ গুলির বিষয়টিও ভেবে দেখতে হবে।

ময়মনসিংহ জেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আওলাদ হোসেন বলেন, ফুটপাত উচ্ছেদের পাশাপাশি হকারদের পুর্নবাসন না করলে জাতীয় শ্রমিকলীগ আন্দোলন করতে বাধ্য হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ