| |

মেয়র হিসাবে নয় হিন্দু ভাইদের পাশে মৃত্যুর পুর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত বিপদে আপদে আছি এবং থাকব

আপডেটঃ 2:02 am | April 02, 2017

Ad

সুমন ঘোষ ॥ সংঘগুরু যুগাচার্য শ্রীমৎ স্বামী প্রনবানন্দজী মহারাজের ১২২তম জন্মোৎসব উপলক্ষে ৩দিনব্যাপী অনুষ্ঠান গত ৩১মার্চ শুক্রবার শেষ হয়েছে।

প্রনবমঠ ময়মনসিংহের উদ্যোগে শেষ দিনে র‌্যালী ও গুরু পুজা ও মহাপ্রসাদ বিতরনের মধ্যদিয়ে বিকাল ৫টায় মঙ্গলাচরন, শ্রী শ্রী সংঘগীতা ও মদ্বাগবত গীতা পাঠ, ভজন, আলোচনা, পুজারতী, প্রার্থনা, বৈদিক যজ্ঞানুষ্ঠান এর মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

আলোচনা অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক ছিলেন প্রনবমঠের দ্বিগীজয়ানন্দজী মহারাজ। অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনা করেন বৃন্দাবন থেকে আগত স্বামী যমুনানন্দজী মহারাজ, ঢাকা প্রনবমঠের অধ্যক্ষ স্বামী সঙ্গীতানন্দজী মহারাজ, বাজিতপুর প্রনবমঠের স্বামী মহিমানন্দজী মহারাজ, স্বামী শুদ্ধনন্দাজী মহারাজ ও ব্রম্মচারী মহারাজ।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু । উপস্থিত ছিলেন মহানগর পুজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক ও দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ পত্রিকার সম্পাদক প্রদীপ ভৌমিক প্রমুখ।

ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু বলেন, প্রত্যেক ধর্মের ধর্মগুরুদের আদর্শ ও জীবযাত্রা অনুসরন করে চললে সমাজে বিশৃংখল অবস্থা থাকতে পারেনা।

তিনি আরো বলেন, আমি সব ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। ময়মনসিংহ সাম্প্রদায়িক সম্পৃতির শহর । এই শহরে জন্মের পর থেকে কোন প্রকার সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটে নাই।

মেয়র হিসাবে আমি বলতে পারি ময়মনসিংহের সব ধর্মের নাগরিকদের প্রতি আমি সমান আচরন করছি। কোন প্রকার ব্যাক্তিস্বার্থ অথবা আবেগ আমার মধ্যে কাজ করেনা। সব নাগরিকই আমার কাছে সমান। মেয়র হিসাবে নয় হিন্দু ভাইদের পাশে মৃত্যুর পুর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত বিপদে আপদে আছি এবং থাকব।

আগামীতে সিটি কর্পোরেশন এর পরিধি বাড়বে। আমি যদি আপনাদের আর্শীবাদে পুনরায় মেয়র হতে পারি তবে মন্দির প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে সর্বোতভাবে সাহায্য করব।

ব্রেকিং নিউজঃ