| |

নেত্রকোনায় হামলা মামলায় নিঃস্ব কৃষক পরিবার!

আপডেটঃ 12:29 am | April 05, 2017

Ad

শাহাজাদা আকন্দ. নেত্রকোনা ॥ প্রতিনিয়ত চলছে হামলা। জীবনের শেষমুহুর্তে লোভ ও প্রতিহিংসার ভয়ানক অস্ত্রে শিকার হয়ে রক্তাক্ত হচ্ছে বৃদ্ধ নারী-পুরুষ! অথচ বিচার প্রার্থীরাই মিথ্যা মামলায় ফেরারি আসামী! সম্পদ হয়ে গেল আজ একটি পরিবারের জন্য গলায় বিধানো কাঁটা! কারণ, জমি দখল নিতেই প্রতিপক্ষের লোকজন হামলা ও মিথ্যা মামলায় লিপ্ত রয়েছে গরীব অসহায় কৃষক টিপু মিয়া’র পরিবারের বিরুদ্ধে। টিপু নেত্রকোনার মদন উপজেলার ১নম্বর কাইটাল ইউনিয়নের বাশুরী কান্দাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

লিখিত অভিযোগে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়ে ভয়ানক পরিস্থিতি থেকে মুক্তি চেয়েছেন তিনি। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রতিবেশি প্রতিপক্ষ মো. নিজাম উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে টিপুদের জমি দখলের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

এ নিয়ে নিজাম দলবল নিয়ে টিপুর পরিবারের ওপর হামলা-লুটপাট চালিয়ে বিভিন্ন সময় তাদেরকে হত্যার চেষ্টায় দেশীয় অস্ত্রে কুপিয়ে জখম করে। শুধু তাই নয় ওই সময় নিজাম নারীদের শ্লীলতাহানী করে। এ ঘটনায় নেত্রকোনা জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগ দাখিল করা হয় যা এখনো তদন্ত চলছে।

আদালতে অভিযোগের বিষয়ে জানতে পেরে নিজাম ও আলী বক্স ক্ষিপ্ত হয়ে টিপুর ভাই তানভীর, চাচাতো ভাই কমল ও বৃদ্ধা দাদী মল্লিকার মাকে বাড়িতে একা পেয়ে কুপিয়ে জখম করে। আহতদেরকে মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করা হয়। এদের মধ্যে তানভীরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে পাঠানো হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে। এ বিষয়ে চাচা মো. আরাধন মদন থানায় মামলা দায়ের করেন।

পরবর্তীতে নিজামের ভাই মো. হোসেন আলী ওই মামলা ঠেকাতে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের মিথ্যা অভিযোগে মদন থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। কিন্তু সেই মামলায় আদালতে হাজির হয়ে জামিন পাওয়ার পর আবারও মিথ্যা অভিযোগে দ্রুত বিচার আইনে আরও একটি মামলা করা হয় টিপুদের বিরুদ্ধে। তদন্ত শেষে মদন থানা পুলিশ আদালতে রিপোর্ট জমা দিলে বাদীপক্ষ তাতে নারাজি দাখিল করলে আদালত তদন্তের জন্য পুনরায় জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) কে নির্দেশ দেন।

কিন্তু ডিবি কোনোরকম তদন্ত না করে প্রতিপক্ষের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে আদালতে রিপোর্ট জমা দিয়েছে বলেও অভিযোগ করে টিপু। এতে আদালত গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ দিলে নির্দোষ ছয়জন মানুষ আসামী হয়ে জেলহাজতে আটক রয়েছেন। এভাবে একের পর এক মিথ্যা অভিযোগের মামলায় নিঃস্ব হয়ে পড়েছে টিপু ও তার পরিবার।

প্রতিপক্ষের হামলা ও সত্য ঘটনা উদঘাটনের মাধ্যমে মিথ্যা মামলা থেকে মুক্তি চেয়ে সাধারণ জীবনযাপনের মাধ্যমে বাঁচতে চায় হতদরিদ্র কৃষক টিপু ও তার পরিবারের সদস্যরা।

ব্রেকিং নিউজঃ