| |

আওয়ামীলীগে কিছু না পাওয়াদের তালিকা তৈরী হচ্ছে

আপডেটঃ 8:49 pm | April 27, 2019

Ad

আওয়ামী লীগে কিছু না পাওয়াদের তালিকা তৈরী হচ্ছে। আর এই তালিকা করছেন প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি নিজে। গত দশ বছর ধরে আওয়ামী লীগ দেশ পরিচালনার দায়িত্ব। এই সময়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ত্যাগী, পরীক্ষীত এবং দু:সময়ের কাণ্ডারী প্রায় সবাইকেই মূল্যায়ন করেছেন, কিন্তু এদের কেউ কেউ তালিকা থেকে বাদ পরেছে। এই বাদ পড়াদের এখন মূল্যায়ন করা হবে বলে জানিয়েছে আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল একাধিক সূত্র। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলাে বলছে, ৫ টি ক্ষেএর যেকোন একটিতে অবদান রেখেছেন অহ কিছুই পাননি এমন নেতালের পুরস্কৃত করা হবে। যে ৫ টি ক্ষেত্রে বিবেচনা করা হচ্ছে, তা হলো – ১. জাতির পিতার সঙ্গে রাজনীতি করেছেন এমন প্রবীণ রাজনীতিবীদরা, যারা এখন জীবন সায়াহ্নে উপনীত হয়েছেন। যেমন, ২০১৪ সালে ইমাজ উদ্দীন প্রামানিককে পুর্নমন্ত্রী করে পুরস্কৃত করা হয়েছিল। এরকম যারা এখন দুএকজন আছেন তাদের তালিকা। করা হচ্ছে। তারা যে কেবল কেন্দ্রীয় নেতা তেমনটা নয়, জাতির পিতার ঘনিষ্ঠ অনেকে এখনাে তৃনমূলেই পরে যাচ্ছে। ২. ৭৫ এর ১৫ আগষ্টের পর যারা প্রতিবাদ করেছিলেন। প্রতিবাদ করতে গিয়ে নির্যাতিত হয়েছেন এমন তৃনমূলের নেতা কর্মীদের তালিকা করা হচ্ছে। যে পরিবার গুলাে ঐ সময় অবস্থান অবদান রেখেছেন, সেই পরিবারের সদস্যদেরও মূল্যায়ন করা হবে। ৩. ২০০১ সালের অক্টোবরের নির্বাচনের পর যারা বিএনপি সন্ত্রাস এবং বর্বরতার স্বীকার হয়েছেন কিন্তু এখন ও মূল্যায়ন হয়নি, তাদের। যারা বিএনপির নৃশংসতায় জীবন দিয়েছেন তাদের পরিবারকে। ৪, ২০০৪ সালের ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলায় যারা নিহত হয়েছেন তাঁদের পরিবার। যারা আহত হয়েছেন তাঁদেরও অবদান মূল্যায়ন করা হবে। ৫. ওয়ান-ইলেভেনের সময় যারা দলের সভাপতির পক্ষে দৃঢ় অবস্থান নিয়েছিলেন, সংস্কারপন্থীরা যাদের কারণে সফল হতে পারেননি তাঁদের যদি কেউ পুরস্কৃত না হন তাঁরাও এবার তালিকায় থাকবেন এবং পুরস্কৃত হবেন। তবে কেউ যদি একটি ক্ষেত্রে অবদান রাখেন অন্যক্ষেত্রে দলের স্বার্থবিরােধী অবস্থান নেন তাহলে তিনি এই তালিকায় থাকবেন না। যেমন ৭৫ এর ১৫ আগস্টের পর দলের জন্য অবদান রেখেছেন কিন্তু আবার ওয়ান ইলেভেনে সংস্কারপন্থী হয়েছেন তিনি এই তালিকায় থাকবেন না। অর্থাৎ যেকোনাে ৫ টি ক্ষেত্রের একটিতে অবদান রেখেছেন বাদবাকি সময়ে দলের আদর্শচ্যুত হননি তাঁরাই মূল্যায়ন তালিকায় ঠাঁই পাবেন। সূত্রমতে, আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে এরা সামনে আসবেন। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন সরকারী পদে তাঁদের নিয়ােগ দেয়া হবে। এদের কেউ কেউ হয়তােবা অদূর ভবিষ্যতে মন্ত্রী ও হবেন। তবে, আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতারা বলছেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি মন্ত্রীসভাসহ বিভিন্ন পদে এদের অধিকাংশকেই মূল্যায়ন করা হয়েছে। এখন প্রধানমন্ত্রী দেখছেন এরপরও কেউ বাদ গেলাে কিনা। তালিকা তৈরি হলেই অবসানের স্বীকৃতি পাবেন দলের পরীক্ষিতরা। যদিও তারা কোনাে মূল্যায়ন প্রত্যাশা করেন না। শেখ হাসিনা দেশের প্রধানমন্ত্রী এটাই তাঁদের সবচেয়ে বড় পুরস্কার।

ব্রেকিং নিউজঃ