| |

বিদ্যাময়ী স্কুলের পিছনে গিরিশ চক্রবর্তী রোডস্থ ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ও রাস্তা সংস্কার করা হবে–মসিক মেয়র টিটু

আপডেটঃ 6:43 pm | July 09, 2021

Ad

স্টাফ রিপোর্টারঃ মাল্টি-পার্টি এডভোকেসি ফোরাম ময়মনসিংহ-এর  আয়োজনে ৮-৭-২০২১ রোজ  বৃহস্পতিবার বিকালে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ১০ নং ওয়ার্ডস্থ  ওয়ার্ডস্থ বিদ্যাময়ী স্কুলের পিছনের গিরীশ চক্রবর্তী  রোডের হলি সোল কিন্ডার গার্টেনের সামনের অরক্ষিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ও ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তার সংস্কারের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে এক ভার্চুয়াল  টাউন হল মিটিংয়ের আয়োজন করা হয়।ভার্চুয়াল টাউন হল মিটিংয়ে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। মাল্টি পার্টি এডভোকেসি ফোরাম ময়মনসিংহ-এর  সাধারণ সম্পাদক মোঃ জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল টাউন হল মিটিং-এ সভাপতিত্ব করেন মাল্টি -পার্টি  এডভোকেসি ফোরাম-ময়মনসিংহ এর সভাপতি সুমন চন্দ্র ঘোষ। অনুষ্ঠান এর শুরুতেই শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের রিজিওনাল ম্যানেজার নার্গিস আক্তার ও রিজিওনাল কো-অর্ডিনেটর নিরুপমা ভৌমিক। বিদ্যাময়ী স্কুলের পিছনে গিরিশ চক্রবর্তী রোডের জনগুরুত্বপূর্ণ অরক্ষিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ও তৎসংলগ্ন রাস্তাটি সংস্কারের ব্যাপারে দাবিনামার যৌক্তিকতা ব্যাখ্যাপূর্বক তুলে ধরেন ময়মনসিংহ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উক্ত কর্মসূচি বাস্তবায়ন কমিটির  টিম লিডার অধ্যাপক দিলরুবা সারমীন । জনগুরুত্বপূর্ণ এই ভার্চুয়াল টাউন হল মিটিং-এ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করে বিশদ আলোচনা করেন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল,মহানগর  বিএনপি’র যুগ্ম-আহ্বায়ক এ কে এম মাহবুবুল আলম, জেলা জাতীয় পার্টির ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শহীদ আমিনী রুমি,জেলা জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন পারভীন ও মহানগর আওয়ামী লীগের বন ও বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রতন প্রমুখ।ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ১০  নং ওয়ার্ডের সাধারণ আসন থেকে নির্বাচিত কাউন্সিলর মোঃ তাজুল আলম ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের কাউন্সিলর  রোকসানা শিরিন ভার্চুয়াল টাউন হল মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে উক্ত বিষয়টি সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় প্রকল্প গ্রহণের বিষয়টি অবহিত করেন। এই ভার্চুয়াল মিটিংয়ে মাল্টি পার্টি এডভোকেসি ফোরাম -ময়মনসিংহের নেতৃবৃন্দের মধ্যে নূরজাহান মিতু,মাহজাবীন জেবীন,মাহমুদা হোসেন মলি, ফারিয়া তাসনিম তিথী, মোঃ  শরীফ উদ্দিন, মোঃ এনামুল হক শাহীন,শারমীন আক্তার লাকী,কামরুল হাসান প্রমুখ সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন।ভার্চুয়াল টাউন হল মিটিংয়ে জেলা বিএনপির মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমীন পারভীন বলেন, নগরীর সি কে ঘোষ রোডটি সবসময় যানজটপূর্ণ থাকে বিধায় গিরীশ চক্রবর্তী রোডটি স্কুলগামী শিক্ষার্থী ও জনসাধারণের যাতায়াতের অন্যতম রাস্তা হিসেবে বিবেচিত,তাই এই সড়কটির আশু সংস্কার ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন অতীব জরুরী। ময়মনসিংহ  মহানগর বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক এ কে এম মাহবুবুল আলম উক্ত অরক্ষিত ড্রেনে একটি শিশুর করুণ মৃত্যুর কথা উদাহরণ টেনে দ্রুততম সময়ের মধ্যে উক্ত সমস্যাটির সমাধানকল্পে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানান। জাতীয় পার্টির সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য শহীদ আমিনী রুমি বলেন, আমি নিজেও এই ওয়ার্ডের বাসিন্দা হিসেবে দীর্ঘদিন যাবত এই সমস্যাটিতে ভুগছি,তাই আশু সমাধান কাম্য।ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার বদান্যতায় করোনাকলাীন সময়ে শত প্রতিকূলতা সত্বেও জননন্দিত মসিক মেয়র ইকরামুল হক টিটু উন্নয়ন কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন।তিনি বলেন, এক সময়ের জলাবদ্ধতাপূর্ণ ময়মনসিংহ নগরীকে আধুনিক ড্রেনেজ ব্যবস্থার আওতায় আনায় শহরের জলাবদ্ধতা অনেকাংশেই দূরীভূত হয়েছে।এডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল আরো বলেন, ময়মনসিংহ শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত জনগুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তাটি ও অরক্ষিত ড্রেনটি নগরীর ক্ষত হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।তাই দ্রুততম সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় প্রকল্প গ্রহণ করে উক্ত রাস্তাটির সংস্কার ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন করার জন্য মসিক মেয়রের প্রতি আহবান জানান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মসিক মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু মাল্টি পার্টি এডভোকেসি ফোরাম ও ডিআই কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সময়োপযোগী ও জনগুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় নজরে এনে ভার্চুয়াল টাউন হল মিটিং আয়োজনের জন্য।মসিক মেয়র টিটু বলেন, এক সময় এই শহরে নৌকা চলাচলের অবস্থা হতো ড্রেনেজ ব্যবস্থা নাজুক থাকায় জলাবদ্ধতার কারণে।আমরা সেই অবস্থাটির আমূল পরিবর্তন ঘটিয়েছি,আমরা বর্তমান পরিষদ ময়মনসিংহ মহানগীরকে জলাবদ্ধতামুক্ত নান্দনিক তিলোত্তমা নগরী গড়ার প্রয়াসে মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছি যার অংশ হিসেবে শহরের পুরনো খালগুলো পুনরুদ্ধার ও ড্রেনেজ ব্যবস্থায় আধুনিকায়ন করেছি। তিনি সবাইকে আশ্বস্ত করে বলেন, দ্রুততম সময়ের মধ্যে জনগুরুত্বপূর্ণ বিবেচনায় বিদ্যাময়ী স্কুলের পিছনে গিরীশ চক্রবর্ত্তী রোডটি সংস্কার, তৎসংলগ্ন ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ও ওয়াকওয়ে নির্মাণ করার জন্য প্রয়োজনীয় প্রকল্প গ্রহণ করা হবে। এমএএফ ময়মনসিংহ -এর সভাপতি সুমন চন্দ্র ঘোষ মসিক মেয়র ও কাউন্সিলরগণকে উক্ত সমস্যাটির গুরত্ব অনুধাুবন করে আশু সমাধানে প্রতিশ্রুতি প্রদান করার জন্য ধন্যবাদ   জ্ঞাপন করে প্রায় তিন ঘন্টাব্যাপী চলা ভার্চুয়াল টাউন হল মিটিংয়ের পরিসমাপ্তি ঘটান।

ব্রেকিং নিউজঃ