| |

গফরগাঁয়ে নিগুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতিকে মনোনয়ন চান যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রিয়াজ উদ্দিন খান

আপডেটঃ 6:02 pm | November 28, 2021

Ad

স্টাফ রিপোর্টার ॥ গফরগাঁও উপজেলার ১৪ ন: নিগুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় নৌকা প্রতিকে মনোনয়ন চান মহান মুক্তিযুদ্ধের যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন খান এর সন্তান সাবেক ছাত্রলীগের নেতা আওয়ামী পরিবারের সদস্য মো: রিয়াজ উদ্দিন খান। তিনি শেখ রাসেল মেমোরিয়াল সমাজকল্যাণ সংস্থা কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, গফরগাঁও উপজেলা নিগুয়ারী শাখার সাধারণ সম্পাদক, বঙ্গবন্ধু প্রজন্ম লীগ, গফরগাঁও উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান গফরগাঁও উপজেলা শাখা সহ-সভাপতি হিসাবে নিষ্ঠা ও সততার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। চেয়ারম্যান প্রার্থী মো: রিয়াজ উদ্দিন খান এর পিতা যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা মো: নাজিম উদ্দিন খান স্বাধীনতা পরবর্তী কালে মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরনে নিজস্ব প্রায় ৩ একর জমিতে দেশের একমাত্র মুক্তিযোদ্ধা বাজার প্রতিষ্ঠা করেন। নৌকা প্রতিক এর প্রত্যাশায় নিগুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন উপলক্ষে চেয়ারম্যান প্রাথী সাবেক ছাত্রলীগের নেতা মো: রিয়াজ উদ্দিন খান এর মতবিনিময় সভা ও প্রচারণা কার্যক্রম অভ্যাহত রয়েছে। প্রায় প্রতিদিনই তিনি এলাকাবাসীর সাথে মতবিনিময় করেন ও প্রচারনা চালান। এলাকার মানুষ রিয়াজ খানের প্রতি যথেষ্ঠ আন্তরিক রয়েছে। করোনাকালীন সময় ও পবিত্র ঈদ সহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে তাঁর পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন খান ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে অসহায় ও দরিদ্র মানুষের মাঝে ঈদ উপহার, ত্রান সামগ্রী ও শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজ খান মতবিনিময় সভা ও প্রচারনা কালে বলেন, আমার পিতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ডাকে সাড়া দিয়ে দেশ মাতৃকার স্বাধীনতার জন্য জীবন বাজি রেখে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন। যুদ্ধের সময় আমার পিতা গুরুতর আহত হয়েছেন। মহান আল্লাহতালাহর ইচ্ছায় যুদ্ধাহত অবস্থায় তিনি বেঁেচ যান। হয়ত পাকহানাদারদের গুলিতে আমার পিতা শহীদ হয়ে যেতে পারতো। আমি সেই পিতার গর্বিত সন্তান। জাতির পিতার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের জন্য প্রানপন প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছি। জনপ্রতিনিধি হিসাবে নির্বাচিত হলে জনগনের সেবার দ্ধার আরো উন্মোচিত হবে। তিনি বলেন, বিগত জাতীয় সংসদ ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকার পক্ষে আমার কর্মী সমর্থকদের নিয়ে ব্যাপক ভুমিকা পালন করেছি। নৌকার পক্ষে কাজ করতে গিয়ে বি.এন.পি জামাত জোট সরকারের রোষানলে পড়ে ষড়যন্ত্রমুলক ৫টি মিথ্যা মামলায় জুলুম নির্যাতনের শিকার হয়েছি। পাশাপাশি একাধিকবার আমাদের বাড়ীঘরে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট করে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করা হয়েছে। চেয়ারম্যান প্রার্থী রিয়াজ খান এর রাজনীতির পাশাপাশি মের্সাস খান এন্টারপ্রাইজ, সরকারী ঠিকাদার ও সরবরাহকারী এর মালিক হিসাবে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে। তিনি গত ২০০৫ সনে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে কাপ পিরিচ মার্কায় প্রতিদ্বন্দিতা করেন। পারিপার্শিক অবস্থার কারনে সামান্য ভোটের ব্যবধানে তিনি পরাজিত হন।

ব্রেকিং নিউজঃ