| |

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের রাজস্ব আদায়ের লক্ষে দোকান বরাদ্দ-জাহাঙ্গীর আলম

আপডেটঃ 11:47 pm | March 23, 2022

Ad

ময়মনসিংহ মেছুয়া বাজার দোকান বরাদ্দ নিয়ে ধ্রুমঝাল। একের পর এক সংবাদ প্রকাশ করায় উত্তাপ মেছুয়া বাজার এলাকা। কেহ বলছে ভুয়া সংবাদ কেহ বলছে সঠিক সংবাদ। সত্য ঘটনা কি? এসব নিয়ে তদন্ত করলে বের হবে প্রকৃত ঘটনা। ঘড়ে বসে কেহ কেহ সংবাদ প্রকাশ করলে সংবাদ প্রকাশ হয় না। প্রকৃত ঘটনা জেনে তারপর তথ্য বহুল সংবাদ প্রকাশ উত্তম বলে মনে করেন পাঠক। মেছুয়া বাজার ইজারাদার সোহেল সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের রাজস্ব আদায়ের লক্ষে সরকারী কোষাগারে অর্থ জমা হচ্ছে। এতে দেশ, সমাজ, নাগরিক, সকলে উন্নয়ন পাচ্ছে । কিন্তু কিছু দুষ্ট প্রকৃতিলোক সিটি কর্পোরেশনের আওয়াতাধীন মেছুয়া বাজারের রাস্তা দখল করে বিভিন্ন ভেন্ডার কাছে বিক্রি করে ও ভাড়া নিচ্ছে। এসব অভিযোগ সিটি কর্পোরেশনে জমা রয়েছে। এই টাকা গুলো বাজার কমিটির পকেটে নয়তো নামধারী এক নেতার পকেটে যায়। তারাই বাজারে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে। সূত্র থেকে জানাযায়, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেছুয়া বাজারের যায়গা গুলো দীর্ঘদিন যাবত বাজারের কমিটি লোকজন ও বাহিরের লোকজন দখল করে প্রতিদিন ৬০০-৮০০টাকা করে ভাড়া নিয়ে যায়। কেহ কেহ এই রাস্তা যায়গা বিক্রি করে দিয়েছে লাখ টাকায় । এমন অভিযোগ সিটি কর্পোরেশনে জমা পড়েছে। এই পক্ষই বাজারে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে। এসব কতিপয় ব্যাক্তিরা নিজ স্বার্থ হাসিল করার জন্য গোলা পানিতে মাছ স্বীকার করার চেষ্টা চালাচ্ছে। নবগঠিত সিটি কর্পোরেশনের হওয়ার পর উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে ময়মনসিংহ মহানগর। এসব উন্নয়নে রাজস্ব আদায় বাড়ার লক্ষে এসব দোকান বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে জানায় সিটি কর্পোরেশনের জাহাঙ্গীর আলম । এই সকল দোকান মালিকরা ১০০ টাকা করে প্রতিদিন সিটি কর্পোরেশনকে জমা দিবে রশিদ মাধ্যমে। খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম বাজার পরিদর্শক আরো বলেন, কিছু অসাধু মানুষ সিটি কর্পোরেশনের যায়গা অবৈধভাবে দখল করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিছে। এসব যায়গা গুলো রক্ষা করে সিটি কর্পোরেশনের রাজস্ব বাড়াতে যায়গা গুলো বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। একটি মহল এর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। একাধীক মহলের দাবী মেছুয়া বাজারে রাস্তা,ড্রেন ভাড়া দিয়ে যারা লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে তাদের আইনের আওয়াতা এনে শাস্তি দেওয়ার দাবী জানাই। সেই সাথে এসব যায়গা গুলো পর্যায় ক্রমে উদ্ধার করে গরিব,অসহায়দের মাঝে বরাদ্দ দেওয়ার দাবী জানানো হয়। তাহলে রাজস্ব বাড়বে। সিন্টিকেট ভাঙ্গবে।

ব্রেকিং নিউজঃ