| |

ময়মনসিংহ মহানগরে দায়মুক্তির সম্মেলন

আপডেটঃ 8:21 pm | May 16, 2022

Ad

প্রদীপ কুমার ভৌমিক : আগামী২১ মে ২০২২ তারিখে ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের ১৩,১৪,১৫ নং ওয়ার্ডের সম্মেলন কেন্দ্রের নির্দেশে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউসনে এই মর্মে একটি খবর মহানগর আওয়ামী লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সভাপতি/সাধারণ সম্পাদকের নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। খবরটি পড়ে আমার মনে হয়েছে কেন্দ্রকতৃক সম্মেলনের নির্দেশ দেওয়া না হলে হয়তো উপরোক্ত ওয়ার্ড গুলির সম্মেলন হত না। আওয়ামী লীগের গঠনতান্ত্রিক নিয়ম অনুযায়ী সম্মেলন করতে হলে ওয়ার্ড গুলিতে নতুন প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ করে পুরাতন সদস্যদের সদস্য পদ নবায়ন করে কাউন্সিলের মাধ্যমে কাউন্সিলরদের সর্বসম্মতিক্রমে কিংবা সংখ্যাগুরু কাউন্সিলরের সমর্থনের মাধ্যমে ওয়ার্ডের নেতা নির্বাচিত করতে হয়। এত অল্প সময়ের মধ্যে গঠননতান্ত্রিক নিয়মগুলো অনুসরণ করে ১৩,১৪,১৫ নং ওয়ার্ডের সম্মেলন করা সম্ভব কিনা তা ভাববার বিষয়। মহানগরের কমিটি কেন্দ্রের অনুমোদনের পর সুদীর্ঘ সময়কালে কেন ওয়ার্ডের কমিটি গঠিত হলো না তা আলোচনার দাবিদার। রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের অভিমত এতে মেয়াদোত্তীর্ণ মহানগরের শীর্ষ নেতৃত্বের অবহেলা কিংবা অদক্ষতার প্রমাণ করে। একদিনে এক জায়গায় তিনটি ওয়ার্ডের সম্মেলন প্রমাণ করে কেন্দ্রীয় নির্দেশ মোতাবেক মহানগর নেতৃত্ব তাদের ব্যর্থতাকে আড়াল করার জন্য আওয়ামী লীগের গঠনতান্ত্রিক নিয়ম সমূহ পূরণ না করে দায়মুক্তির সম্মেলন করতে যাচ্ছে। এতে করে দল শক্তিশালী হওয়ার পরিবর্তে দুর্বল হবে বলে অনেকেই মনে করেন। দলের নেতৃত্তের উপর আস্হা ও দলের ভেতর অনৈক্যে সৃষ্টির সম্ভাবনা বেশি থাকবে। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বকালীন সময় এ ধরনের ঘটনা আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও সমর্থকদের কাছে কাম্য নয়।একজন আওয়ামী লীগের সমর্থক হিসেবে আমার কাছেও তাই মনে হয়। ঘোষিত ওয়ার্ড গুলির সম্মেলনের মাধ্যমে বর্তমান মহানগর নেতৃত্তের সাংগঠনিক ব্যর্থতাকে আড়াল করার অপপ্রয়াস বলে বিবেচিত।জয় বাংলা -জয় বঙ্গবন্ধু।

ব্রেকিং নিউজঃ