| |

ইতিহাস বিকৃতি রোধে আইনের খসড়া তৈরি

আপডেটঃ 3:09 am | March 23, 2016

Ad

নিজস্ব প্রতিবেদক : মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি রোধে আইনের খসড়া তৈরি করেছে আইন কমিশন (ল‘কমিশন) । মঙ্গলবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে দেখা করে কমিশনের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করেছেন আইন কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হক। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন, আইন কমিশনের সদস্য বিচারপতি এটিএম ফজলে কবীর ও ড.এম শাহ আলম এবং সচিব মো. আলী আকবর।

রাষ্ট্রপতি তখন আইন কমিশনকে যুগোপযোগী আইন প্রণয়ন এবং বিদ্যমান আইনের হালনাগাদ করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বলেন। মুক্তিযদ্ধের ৩০ লাখ শহীদের সংখ্যা নিয়ে সম্প্রতি খালেদা জিয়া সন্দেহ প্রকাশ করে বক্তৃতা দেয়ার পর ইতিহাস বিকৃতির শাস্তির জন্য আইন করার দাবি ওঠে।

গত ২১ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির এক অনুষ্ঠানে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া শহীদদের সংখ্যা নিয়ে মন্তব্য করেন। এর কয়েকদিন পর আরো এক আলোচনা সভায় দলের অপর নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় শহীদ বুদ্ধিজীবীরা ‘নির্বোধের’ মতো মারা গেছেন বলে মন্তব্য করলে ব্যাপক সমালোচনা হয়। বিএনপি থেকে এ ধরনের বক্তব্য আসার পর বিভিন্ন মহল থেকে ইতিহাস বিকৃতির জন্য শাস্তির দেয়ার আইন প্রণয়নের দাবি আসে বিভিন্ন মহল থেকে।

এরপর বিচারপতি খায়রুল হক বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ও শহীদদের বিরুদ্ধে বক্তব্য বন্ধে এবং মুক্তিযুদ্ধে গণহত্যাকারীদের পক্ষ যারা নেবে, তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এক আইনের খসড়া তৈরি করেন তারা।

রাষ্ট্রপতির প্রেসসচিব মো. জয়নাল আবেদীন সাংবাদিকদের বলেন, আইন কমিশনের চেয়ারম্যান সাক্ষাতের সময় রাষ্ট্রপতিকে বার্ষিক প্রতিবেদন-২০১৫ এর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

আদালতের মামলা জট, কারণ ও সমাধানের উপায় এবং সুপ্রিমকোর্টের বিচারকদের দায়বদ্ধতা, অসদাচরণ, নিয়ে তদন্ত ও পরবর্তী কার্যক্রম নিয়ে আইন কমিশনের মতামত ও সুপারিশ আবদুল হামিদকে জানানো হয়। তবে “ইতোমধ্যে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি রোধে আইনের খসড়াও সম্পন্ন করা হয়েছে,” বলে জানান রাষ্ট্রপতির প্রেসসচিব।

ব্রেকিং নিউজঃ