| |

তনু হত্যা : ২৫ এপ্রিল সারাদেশে অর্ধদিবস হরতাল

আপডেটঃ 3:09 pm | April 07, 2016

Ad
আলোকিত ময়মনসিংহ : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনুর হত্যাকারীদের বিচার দাবিতে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় ঘেরাও কর্মসূচিতে বাধা দিয়েছে পুলিশ। এর প্রতিবাদে আগামী ২৫ এপ্রিল সারাদেশে আধাবেলা হরতালের ডাক দিয়েছে সংগঠনটি।

গত ২২ মার্চ রোববার রাতে ময়নামতি সেনানিবাসের অলিপুর এলাকায় একটি কালভার্টের কাছ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে পুলিশ জানায়। পুলিশের ভাষ্য ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় তনুকে। আর এই হত্যার ঘটনায় সারাদেশে প্রতিবাদের ঝড় উঠে। তবে এখনো পর্যন্ত এ ঘটনায় কাউকে আটক বা গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

ঘটনা প্রকাশের পর থেকেই র‌্যাব একটি ছায়া তদন্ত করে।  শুক্রবার সন্ধ্যায় তনুর বাবা ও বড় ভাইকে এবং ওই দিন গভীর রাতে তনুর মা, ছোট ভাই ও চাচাতো বোনকে র‌্যাব সদ্স্যরা বাড়ি থেকে ক্যান্টমেন্টে নিয়ে জিজ্ঝাসাবাদ করে।

আজ সকালে র‌্যাবের ১২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও ৪৫তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে র‌্যাব সদর দপ্তরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘র‌্যাব ঘটনার পর থেকেই ছায়া তদন্ত। খুব শিগগিরি হয়তো আপনাদের ভাল খবর দিতে পারবো।’

নিহত সোহাগী জাহান তনু (১৯) কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ও ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটারের (ভিসিটি) সদস্য ছিলেন। সে ময়নামতি সেনানিবাস এলাকার অলিপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ইয়ার হোসেনের মেয়ে।

তাদের গ্রামের বাড়ি তিতাস উপজেলায়। তারা অলিপুর এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে সোহাগী মেজ।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) আবদুল্লাহ আল-মামুন জানান, কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় একটি কলোনীতে পরিবারের সাথে থাকতেন সোহাগী জাহান তনু (২০)। রবিবার বিকাল ৩টায় সে বাড়ির কাছেই ১২ ইঞ্জিনিয়ার ব্যাটালিয়ন কোয়াটারে সার্জেন্ট জাহিদের বাসায় এবং ষষ্ঠ বীরের সৈনিক জাহিদের বাসায় প্রাইভেট পড়াতে যান। রাত সাতটার দিকে সার্জেন্ট জাহিদের প্রথম শ্রেণির মেয়েকে পড়ানোর পর বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

তিনি আরো জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে ১২ ইঞ্জিনিয়ার ব্যাটালিয়ন কোয়াটার সংলগ্ন পাহাড় হাউস এলাকার কাছের কালভার্টের কাছে সোহাগী জাহান তনুর লাশ পাওয়া যায়। এ সময় তার মুখে আঘাতের চিহ্ন এবং কামিজ ছেড়া ছিল। লাশের পাশে অসংখ্য চুল ছেড়া অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। নিহত তনু থাকতেন কুমিল্লা সেনানিবাসের আবাসিক এলাকা ৫৮/১ পাহাড় হাউসের একটি টিনশেড বাসায়। জানা গেছে, নিহত কলেজ ছাত্রীর লাশ উদ্ধারের পর প্রথমে কুমিল্লা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নিয়ে যায় হয় এবং পরে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নেয়া হয়।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত সামসুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়ের করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। একই থানার এসআই সাইফুল জানান, মেয়েটির চুল কাটা ছিল। এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য তনুর বাবা ও ভাইয়ের ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তাদের ফোন কেউ তুলছে না বলে তাদের সাথে কথা বলা যায় নি। নিহত সোহাগী জাহান তনু কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটারের কর্মী ছিল। সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক ফারহানা আহমেদ জানান, কালকে যখন রাত হয়ে যাওয়ার পরেও তনু বাসায় ফিরছে না দেখে তার বাবা খুঁজতে বের হয়। এ সময় রাস্তায় তিনি মেয়ের জুতা দেখতে পান। পরে দেখতে পান কিছু দুরে মেয়েদের চুল ছেড়া অবস্থায় পড়ে আছে এবং একটি মোবাইলও পড়ে আছে। তারপর জঙ্গলের ভেতর রক্ত ও তনুর লাশ দেখতে পান। নিহত তনুর গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার মুরাদনগরের মীর্জাপুরে । – See more at: http://www.jamunanews24.com/bn/details.php?id=16792#sthash.hK75WheQ.dpuf

ব্রেকিং নিউজঃ