| |

ময়মনসিংহে ইলেকট্রনিক্স বর্জ্য যথাযথ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সংবাদ সম্মেলন

আপডেটঃ 9:42 pm | May 05, 2016

Ad

স্টাফ রিপোর্টার : ময়মনসিংহ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের অন্তর্গত গাঙ্গিনাপাড়, সি.কে. ঘোষ রোড ও দূর্গাবাড়ী রোড শহরের অন্যতম ইলেকট্রনিক্স বাজার হিসেবে পরিচিত। এই এলাকার বিভিন্ন দোকান থেকে প্রতি মাসে  পুরাতন অকেজো ও অব্যবহৃত প্রায় ২ টন এর অধিক ইলেকট্রনিক্স বর্জ্য উপরোক্ত রাস্তায় পড়ে থাকে। যেমন পুরাতন মোবাইল ফোন, কম্পিউটার, টেলিভিশন, ফ্রিজ সহ অন্যান্য বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস এর অব্যবহৃত যন্ত্রাংশ।
বৃহস্পতিবার ৫ মে ২০১৬ ইং তারিখে ময়মনসিংহ প্রেসকাবে জেলা ছাত্রলীগ নেতা ও ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল মনোনীত রাজনৈতিক ফেলো মাহবুব আলম মামুন আয়োজিত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স বর্জ্য যথাযথ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। তিনি ইলেকট্রনিক্স বর্জ্যরে কারণে মানবদেহের তিকর প্রভাব ও পরিবেশ দূষণের কারণগুলো নিয়ে লিখিত গবেষণা প্রতিবেদন তোলে ধরেন।
উক্ত সংবাদ সম্মেলনের বিশেষ অতিথি ত্রিশালে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুৎফুন নেছা বিউটি তার বক্তব্যে বলেন এই বর্জ্য পরিবেশ ও মানবদেহের জন্য এক নিরব ঘাতক। তাই জন প্রতিনিধিদের এই বিষয়ে এখনই ভাবতে হবে।
ময়মনসিংহ উন্নয়ন সংঘের নির্বাহী পরিচালক সেলিমা আজাদ বলেন, ই-বর্জ্য সাধারণ বর্জ্য থেকে আলাদা। তাই এসবের আলাদা ব্যবস্থাপনার প্রয়োজন।
বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির প্রতিনিধি আনিস বিপ্লব বলেন, যারা ই-বর্জ্যরে জন্য দায়ী তারা সহ পৌরসভার সম্মিলিত প্রচেষ্ঠার প্রয়োজন।
ময়মনসিংহ প্রেসকাবের সাধারণ সম্পাদক বাবুল হোসেন তার বক্তব্যে বলেন, ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় বিষয়ে সরকারি উদ্যোগ এখনই প্রয়োজন।
কালের কণ্ঠের ময়মনসিংহ জেলা প্রতিনিধি নিয়ামুল কবির সজল বলেন, সবাই যার যার জায়গা থেকে ই-বর্জ্য ব্যাপারে সচেতন হতে হবে।
৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মীর হাবিবুর রহমান বলেন, পৌরসভা এবং নাগরিকদের সম্মিলিত প্রচেষ্ঠায় আমরা ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করতে পারি।
৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফারুক হাসান বলেন, আমি সবার বক্তব্য শুনেছি এবং তাদের সুপারিশগুলি সম্মানিত মেয়র মহোদয়ের সাথে আলোচনা করে ই-বর্জ্য আলাদা ব্যবস্থাপনা করে পরিবেশ এবং নাগরিকদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করব।
এ ছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের সাবেক ফেলো ও মহানগর তাতীলীগের সভাপতি সুমন চন্দ্র ঘোষ, মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী আনোয়ারা খাতুন, মাহমুদা মলি, নাহিদ ইকবাল, জেলা ছাত্রলীগ নেতা আনোয়ারুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা আবু হাসান বাবু, তৃনমুল লীগের আহবায়ক সহ জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা ছাত্রলীগ, পরিবেশ আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিকের প্রতিনিধি বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ব্রেকিং নিউজঃ