| |

যার যার অবস্থা থেকে প্রতিবাদ করার আহবান-সাইফুর রহমান সোহাগ

আপডেটঃ 2:36 am | May 09, 2016

Ad

আলোকিত ময়মনসিংহ ডেস্ক:  চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ তার ফেইসবুক আইডিতে বলেছেন ………. অত্যন্ত দুখভারাক্রান্ত মন নিয়ে আজ যখন আমাদের উন্নয়নের স্বপ্নদ্রষ্টা, গণতন্ত্রের মানসকন্যা, বিশ্বশান্তির অগ্রদূত, বিশ্বজয়ী বিশ্বনেত্রী, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ, যখন বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা করছে উন্নত দেশসমূহের সাথে, যখন বাংলাদেশের মানুষের জীবনযাত্রার মান, মাথা পিছু আয়, গড় আয়ু, শিক্ষার সুযোগ ইত্যাদী বেড়েই চলেছে দূর্বার গতিতে, ঠিক তখনি বাংলাদেশের নিরীহ মানুষের সামনে মৃত্যু পরোয়ানা নিয়ে হাজির হচ্ছে দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রকারীরা।
আপনারা সবাই জানেন এই ষড়যন্ত্রকারীরা কারা? কার নেতৃত্বে এরা পরিচালিত হয়? এদের উদ্দ্যেশ্য কি?
আজ বিএনপি নেত্রী, জঙ্গিরাণী খালেদা জিয়া যখন দেখছে বৈধ পথে ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন শুধুই স্বপ্নই রবে, যখন বুঝতে পারছে বাংলাদেশের জনগন আর মুক্তিযুদ্ধের আদর্শহীন বিএনপির পাশে নেই, যখন দেখছে বাংলাদেশের আপামর জনসাধারন দেশরতেœর নেতৃত্বের উপরের সম্পূর্ণ আস্থাশীল, তখন লাশের রাজনীতিকেই আবারো বেছে নিয়েছে জঙ্গিরাণী খালেদা জিয়া। বেগম জিয়ার ছোড়া পেট্রোল বোমায় নিহত ও আহতদের আহাজারি শেষ হতে না হতেই তিনি আবারো শুরু করেছেন গুপ্ত হত্যা। আর এ কাজে বিশ্বস্ত সিপাহসালা হিসেবে বেছে নিয়েছেন জামাত- শিবিরকে।
হোয়াং হো-কে যেমন বলা হয় চীনের দুঃখ, ঠিক তেমনি জামাত- শিবিরকে বাংলাদেশের দুঃখ বলা যেতে পারে। জামাত- শিবির নামক অভিশাপ থেকে যতদিন বাংলার মানুষের মুক্তি না মিলবে, ততদিন আমরা বুক ভরে শ্বাস নিতে পারবো না।
বিএনপি জামায়াতিদের দুইটা স্তর আছে। এর এক স্তরের লোকেদের কাজ প্রোপাগান্ডা তৈরি করা, সেটার উদাহরণ খালেদা জিয়া নিজেই। আরেক অংশ হলো মুরিদ, এরা কোন সত্য মিথ্যার ধার ধারবে না, সেই প্রোপাগান্ডা ধরে হই হই রই করবে।
আমরা যদি খুব অনুসন্ধিৎসু নজর দিয়ে দেখি, তাহলে দেখতে পাবো যে- শফিক রেহমানের গ্রেফতার অত:পর সিজার আহমেদের মুখোশ উন্মোচন।
তারপর আবারও গর্জে উঠলো হায়েনা চাপাতি। এক কোপে দ্বিখন্ডিত হল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক গলা, দিন-দুপুরে কলাবাগানে চাপাতির আঘাতে নিহত হলেন আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনের কর্মি সহ আরো একজন!!
এ থেকে কি বোঝা যায়?? গুপ্ত হত্যার শেকড় কোথায়? কাদের আঙ্গুলের ইশারায় এসব হচ্ছে। এখনই সময় প্রতিবাদ করার। আমাদের সবার উচিত যার যার অবস্থা থেকে প্রতিবাদ করা। আমি আমার অবস্থান থেকে প্রতিবাদ করছি ও শপথ নিচ্ছি প্রতিহত করারও।
আপনাদেরকেও আহ্বান জানাবো- আপনারাও এগিয়ে আসুন প্রতিবাদে ও প্রতিরোধে
জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।

ব্রেকিং নিউজঃ