| |

আসুন ঐক্যবদ্ধ ভাবে জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচী পালন করি – এড. জহিরুল হক

আপডেটঃ 12:24 pm | August 11, 2016

Ad

মো: মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী: 
ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের প্রশাসক এডভোকেট জহিরুল হক খোকা বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হত না। আজকের দিনে দেশের এই সংকটময় মুহুর্তে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। কিন্তু যারা আওয়ামীলীগের চাইতে নিজেদের স্বার্থের চিন্তা বেশি করে তারা পুনরায় আলাদা ভাবে দলের একাংশের কিছু নেতাকর্মীদের নিয়ে আলাদা ভাবে কর্মসুচী গ্রহন করেছে। এটা ঠিক নয়, আসুন আমরা সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধ ভাবে জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচী পালন করি।
বুধবার দুপুরে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে জেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভায় এডভোকেট জহিরুল হক খোকা একথা বলেন।
আলোচনা সভায় ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে টাউন হলে সকাল ৭টায় জাতীয় ও কালো পতাকা উত্তোলন, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন ও শপথ গ্রহনের সিদ্বান্ত নেয়া হয়। সভায় এডভোকেট জহিরুল হক খোকাকে আহবায়ক ও ইকরামুল হক টিটুকে সদস্য সচিব করে বঙ্গবন্ধু শাহাদাৎ বাষিকী উদযাপন কমিটি গঠন করা হয়।
ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, আমরা যারা এ প্রজন্মের বিস্বাস করি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্বব। তিনি দু:খ করে বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীরা যখন দেশে জঙ্গী ও সন্ত্রাসের নামে দেশ ও জাতীকে ধংস করার চেষ্টায় লিপ্ত তখন আমরা কতিপয় নেতার জন্য ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে পারছি না। অতীতের মত আবারো তারা নিজেদের পছন্দের লোক নিয়ে ১৫ই আগষ্টের মত একটি জাতীয় কর্মসুচী আওয়ামীলীগের নামে পালন করার চেষ্টা করছে। আসুন এ ধরনের মানসিকতা পরিহার করে নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ ভাবে আওয়ামীলীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালন করি। বিভিন্ন কর্মসুচী ঐক্যবদ্ধ ভাবে পালন করে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করি।
আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব এহতেশামুল আলম, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মো: ফারুক হোসেন, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক আহমদ আলী আকন্দ, জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি আওয়ামীলীগ জেলা কমিটির সাবেক সদস্য অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি আওয়ামীলীগ শহর কমিটির সাবেক সদস্য প্রদীপ ভৌমিক, আওয়ামীলীগ নেতা শহীদ শিকদার, এড. ফরিদ আহমেদ, জেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক এম এ কদ্দুছ, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক শাহ শওকত উসমান লিটন, প্রচার সম্পাদক বজলুর রশীদ নাছিম, তথ্য ও গভেষনা সম্পাদক আখেরুল ইসলাম সোহাগ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক শওকত জাহান মুকুল, আমোকসু‘র সাবেক জিএস কাজী আজাদ জাহান শামীম, মহানগর শ্রমিকলীগের সভাপতি পুলক রায় চৌধুরী, কোতোয়ালী আওয়ামীলীগের নেতা আবু সাইদ দীন ইসলাম ফখরুল, সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা শেখ মাসুম, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবীর হিমেল, জেলা ছাত্রলীগ নেতা অনিক প্রমুখ।

ব্রেকিং নিউজঃ