| |

স্কুলের নির্বাচন অনিয়মের অভিযোগের জেরে দুই পক্ষের উত্তেজনার মধ্যে লাঞ্ছিত শিক্ষিকা

আপডেটঃ 10:15 pm | December 08, 2016

Ad

স্টাফ রিপোর্টার : ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার একটি স্কুলের সভাপতি পদে নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগের জেরে দুই পক্ষের উত্তেজনার মধ্যে লাঞ্ছিত হয়েছেন একজন শিক্ষিকা। আহতাবস্থায় তাকে  ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার ধানিখলা ইউনিয়নের কাটাখালি ওমর আলী হাই স্কুলের পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন হয় গতকাল বুধবার। তাতে সর্বোচ্চ ভোট পান নূরুল ইসলাম মেম্বার।

পরে সভাপতি নির্বাচনে মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময় হয়েছে বলে এক পক্ষ অভিযোগ করেন। তাদের আরো অভিযোগ, সভাপতি নির্বাচনে একজনের পক্ষে জোর করে শিক্ষক প্রতিনিধির স্বাক্ষর নেয়া হয়।

এ নিয়ে উত্তেজনার জেরে ত্রিশাল উপজেলা শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এ সময় শিক্ষক প্রতিনিধি বিলকিস জাহান লাঞ্ছিত হন। সন্ত্রাসীরা তাকে প্রকাশ্যে টানাহেঁচড়া করে। এ ঘটনায় গুরুতর অবস্থায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৬ নম্বর ওয়ার্ডে  ভর্তি করা হয়।

ঘটনায় অভিযোগের তীর নতুন সভাপতি হওয়া শফিকুল ইসলাম শফির দিকে। তিনি সরকারি কর্মকর্তা হয়েও স্কুলের সভাপতি হয়েছেন। আর এ জন্য তিনি ত্রিশাল শিক্ষা অফিসে সদলবলে হাঙ্গামার মাধ্যমে জোর করে শিক্ষক প্রতিনিধির স্বাক্ষর নেন বলে অভিযোগ।

অভিযোগ করা হচ্ছে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. চান মিয়ার বিরুদ্ধেও। বলা হচ্ছে, তার যোগসাজশেই শফিকুল ইসলামকে সভাপতি করা হয় স্কুল ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোট পাওয়া নূরুল ইসলাম মেম্বারকে বাদ দিয়ে। এতে তার সমর্থকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে প্রতিবাদ জানান।

গতকাল বুধবার ওই স্কুলের পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতি পদ নিয়ে বাদ-প্রতিবাদ, উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে আজ কমিটির বৈঠক বসে ত্রিশাল শিক্ষা অফিসে। সেখানেই বাধে গন্ডগোল, লাঞ্ছিত হন শিক্ষিকা। এ ঘটনায় শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকার মানুষের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ