| |

ময়মনসিংহের উন্নয়নের জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সততা ও নিষ্ঠার সহিত কাজ করে যাবো

আপডেটঃ 1:18 am | January 29, 2017

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ আজ ২৯ জানুয়ারী সকাল ১১টায় শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন মিলনায়তনে  ময়মনসিংহ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব নিচ্ছেন নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান। সাবেক ডাকসু নেতা, ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি, গনতন্ত্র মুক্তি ও স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে ৭৫ পরবর্তী সময়ের রাজপথের আপোসহীন নেতা অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান জনপ্রতিনিধি হিসাবে নবযাত্রা শুরু করবেন আজ। চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব গ্রহনের পুর্বের দিন উনার এক সময়ের রাজনৈতিক সহকর্মী বিশস্ত বন্ধু জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ পত্রিকার সম্পাদক প্রদীপ ভৌমিকের সাথে দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ পত্রিকা অফিসে একান্তে কথা বলেন। তিনি বলেন জননেত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামীলীগ সভানেত্রী বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাকে সুষ্ঠু ভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দিয়ে ছিলেন। জেলা পরিষদের ভোটাররা দলমত নির্বিশেষে ভোট দিয়ে বিপুল ভোটে তাকে নির্বাচিত করেছেন। উনার উপর আস্তা জ্ঞাপন করেছেন সততা ও নিষ্ঠার সহিত ময়মনসিংহের উন্নয়নের জন্য কাজ করার। ময়মনসিংহবাসী সবার প্রতি সমান আচরন করে ময়মনসিংহবাসীর জন্য সততা ও নিষ্ঠার সহিত উনি কাজ করবেন বলে যে প্রত্যাশা করে তিনি তা শতভাগ পুরন করার ব্যাপারে সচেষ্ঠ থাকবেন। অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান বলেন, দুর্নীতির ব্যাপারে তিনি জিরো টলারেন্সে বিশ্বাসী। দুর্নীতিবাজ যেই হউক, যত কাছের লোক হউক না কেন তিনি তাদের প্রশ্রয় দিবেন না। অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান মনে করেন, তিনি সাধারন জনগনের প্রতিনিধি হিসাে কাজ করতে চান। কোন বিশেষ গোষ্টির জন্য নয়। তার নিজ দল আওয়ামীলীগ সমন্ধে তিনি বলেন অতীতের ভুল গুলোকে পিছনে ফেলে ত্যাগী নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামীলীগ গড়ে তুলে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। তা হলেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্বব হবে। সাম্প্রদায়িক শক্তি, জঙ্গী ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে উনার ভুমিকা থাকবে আপোষহীন। স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী জনগনের ঐক্যের বিকল্প নেই বলে তিনি মনে করেন। ময়মনসিংহ জেলার শিক্ষা খেলাধুলার উন্নয়নের জন্য সর্বাত্বক ভাবে সচেষ্ঠ থাকবেন তিনি। অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান আরো বলেন, গ্রাম বাংলায় গ্রামের উন্নয়ন করতে পারলেই বাংলাদেশের উন্নয়ন সম্ভব। কারন বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ গ্রামে বাস করে। তাই তিনি ময়মনসিংহ জেলায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গ্রামের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাবেন। তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ময়মনসিংহ জেলার স্থানীয় সমস্যা গুলো আপনারা তুলে ধরবেন। আমি যেন জানতে পারি কোথায় কি সমস্যা আছে। স্থানীয় সরকারের পক্ষে যদি এই সমস্যা গুলো সমাধান করা সম্ভব হয় তাহলে আমি তা করার চেষ্টা করবো। অধ্যাপক ইউসুফ পাঠান বলেন, ময়মনসিংহের উন্নয়নের জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সততা ও নিষ্ঠার সহিত তিনি কাজ করে যাবেন। তিনি জনগন, রাজনৈতিক নেতাকর্মী, বন্ধুবান্ধব, সহপাঠি সবার কাছে ময়মনসিংহে উন্নয়নের জন্য দোয়া ও সহযোহিতা কামনা করেন।

ব্রেকিং নিউজঃ