| |

মুক্তাগাছাকে বাল্য বিয়ে মুক্ত ঘোষণা করলেন ডিসি খলিলুর রহমান

আপডেটঃ 5:15 pm | January 31, 2017

Ad

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি : “বাল্য বিয়েকে না বলুন, বাল্য শিক্ষাকে হাঁ বলুন” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে মুক্তাগাছায় বাল্য বিয়েকে লাল কার্ড দেখালো ৩ সহস্রাধিক শিক্ষার্থী। সেই সাথে তারা শপথ নিল বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ করারও।
মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) সকালে মুক্তাগাছা উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে মুক্তাগাছাকে বাল্য বিয়ে মুক্ত ঘোষণা ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তারা এ শপথ নেন।
উপজেলা পরিষদের মাঠে মুক্তাগাছার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ৩ সহস্রাধিক শিক্ষার্থী একত্রিত হয় অনুষ্ঠানে। প্রতিটি শিক্ষার্থীর হাতে তোলে দেওয়া হয় ওয়ার্ল্ড ভিশনের সহযোগিতায় বাল্য বিয়েকে না বলুন সম্বলিত লেখা একটি করে লাল কার্ড। সেই সাথে দেওয়া হয় একটি করে রজনীগন্ধ্যার স্টিক।
শিক্ষার্থীরা রংবেরংয়ের ব্যানার, ফেইজ স্টোন ও হাজার হাজার বেলুন উড়িয়ে মুক্তাগাছা উপজেলাকে বাল্য বিয়ে মুক্ত ঘোষণা করেন ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক (ডিসি) খলিলুর রহমান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য সালাহউদ্দিন আহমেদ মুক্তি।
সমাজ সেবা কর্মকর্তা তাহমিনা নাসরিনের সঞ্চালনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জুলকার নায়নের শুভেচ্ছা বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হয় আলোচনা সভা। এতে বক্তব্য রাখেন মুক্তাগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান জাকারিয়া হারুন, পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুহানা ইসলাম, মুক্তাগাছা থানার ওসি আখতার মুর্শেদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন সরকার, ওয়ার্ল্ড ভিশনের ন্যাশনাল চাইর্ল্ড প্রোডেকশন কো-অর্ডিনেটর তানজিনা আক্তার, ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট আমিনুল ইসলাম, গোপালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তারুকুজ্জামান তারেক, ক্ষুদে শিক্ষার্থী হুমায়রা ইমু ও লাবীব।
পরে শিক্ষার্থীদের বাল্য বিয়েকে না বলুন এর শপথ বাক্য পাঠ করান উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুলতানা বেগম আকন্দ। এর পর পিএসসি ও জেএসসি পরীক্ষায় ১১শ কৃতি শিক্ষার্থীকে উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে সংবর্ধনা, ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।
১৮ বছরের নিচে কোনো মেয়ের বিয়ে না দিতে জেলা প্রশাসক (ডিসি) খলিলুর রহমান আহ্বান জানান। পরে সবাই সমস্বরে বাল্যবিয়েকে ‘না’ জানায় এবং লাল কার্ড প্রদর্শন করেন। পরে জেলা প্রশাসক এ উপজেলাকে বাল্যবিয়ে মুক্ত ঘোষণা করেন।

ব্রেকিং নিউজঃ