| |

চলতি মৌসুম কোহলির চতুর্থ ডাবল সেঞ্চুরি

আপডেটঃ 2:23 pm | February 10, 2017

Ad

স্টাফ রিপোর্টারঃ ভারতের তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক বিরাট কোহলি মাঠে নামলেই রেকর্ড যেন তার পিছু নেয়। হায়দরাবাদ টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শুরুতে আগ্রাসি মেজাজে ব্যাটিং শুরু করে ১১১ রানে অপরাজিত থেকে খেলা শুরু করা ভিরাট কোহলি ও ৪৫ রানে অপরাজিত থাকা আজিঙ্কে রাহানে।

ইনিংসের ৯৫তম ওভারে এসে ইনজুরি ফেরত আজিঙ্কে রাহানে অর্ধশত তুলে নেন।  দলের স্কোর তখন তিন উইকেটে ৩৮০ রান।  কোহলি ও রাহানের ব্যাটে ওয়ানডে রান রেটে স্কোর বাড়াতে থাকে ভারত।

দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনেই সাতটি চার মেরে ব্যক্তগত ১৫০ ও দলীয় ৪০০ রান পূর্ণ করেন কোহলি।  ১০৪ ওভার শেষে পানি পান বিরতির আগে ভারতের স্কোর দাঁড়ায় তিন উইকেটে ৪২৬ রান।

ওভার প্রতি চার রান করে এগোতে থাকা ভারতকে থামাতে হলে বিশেষ কিছু দরকার ছিল।  বিরতি শেষে দুই প্রান্ত থেকে মিরাজ ও তাইজুল রান আটকে রাখার মিশনে বল করে যান।

রান শুকিয়ে উইকেটের দেখাও পেয়ে যায় বাংলাদেশ।  ইনিংসের ১১৪তম ওভারে এসে তাইজুলের অফ ষ্ট্যাম্পের বাইরে বলে পরাস্ত হয়ে বাতাসে ড্রাইভ করে বসে রাহানে।

শর্ট কাভারে থাকা মিরাজ তার বাম দিকে লাফিয়ে অবিশ্বাস্য ক্যাচ নিয়ে রাহানেকে ৮২ রানে সাজঘরে ফেরান।  দলীয় রান তখন চার উইকেটে ৪৫৬ রান।

ভালো বোলিংয়ের সুফল পেয়েছিলেন মিরাজ নিজেও।  উইকেটের কিছুটা গ্রিপ কাজে লাগিয়ে ইনিংসের ১১৭তম ওভারে কোহলি লেগ বিফরের ফাঁদে ফেলেছিলেন তিনি।

কিন্তু রিভিউতে রক্ষা পান ভারতীয় অধিনায়ক।  একই ওভারে দুই দুইবার কোহলিকে ব্যাটের পাশ দিয়ে পরাস্ত করেন মিরাজ।  ঠিক পরের ওভারেই ঋদ্ধিমান সাহাকে ফ্লাইটের লোভ দেখিয়ে সুযোগ সৃষ্টি করেছিলেন তাইজুল।

কিন্তু কিপার মুশফিকের অমার্জনীয় ভুলে হাতছাড়া হয় আরেকটি সহজ সুযোগ।  শেষ পর্যন্ত সাহা ও কোহলি ভারতকে কোন বিপদে না ফেলে চার উইকেটে ৪৭৭ রান তুলে লাঞ্চ ব্রেকে যায়।

কোহলি ১৯১ ও সাহা ৪ রানে অপরাজিত থেকে লাঞ্চ শেষে খেলা শুরু করেন।  হায়দরাবাদে তখন কোহলির আরেকটি ডাবল সেঞ্চুরির অপেক্ষায় ছিল দর্শকরা।

লাঞ্চের দুই ওভারের মাথায় তাইজুলকে কাভারের উপর দিয়ে তুলে মেরে ক্যারিয়ারের চতুর্থ ডাবল সেঞ্চুরি তুলে নেন কোহলি এবং চারটিই চলতি মৌসুম খেলা টানা চার সিরিজে।

ব্রেকিং নিউজঃ